Archives for category: Uncategorized

সেটা ছিল একটা শীতের সন্ধ্যা । আমার আদরের বোন অনন্যা ঘরে বসে টিভি দেখছিল । ওর পরনে ছাই রং এর জ্যাকেট আর কালো প্যান্ট, পায়ে নীল চটি । একটু আগে আমার করা টিফিন শেষ করে ও এখন পায়ের ওপর পা তুলে চেয়ার এ বসে টিভি দেখছে। আমি ওর স্কুলের জুতো পরিস্কার করে এখন ওর স্কুল ড্রেস আয়রন করছিলাম। হঠাৎ বোন ডাকলো , “দাদা, শোন।” আমি ওর কাছে গিয়ে বল্লাম, “বলো”। এমন না যে সবসময় আমি ওকে “তুমি “ বলে সম্বোধন করি। তবে ও আমার ৪ বছরের ছোট আদরের বোন, ভালবেসে ওর সব কাজ করে দিই আমি। ওর জন্য টিফিন করি, ওর জামা কাচি,আয়রন করি,ঘর ঝাট দিই,জুতো পরিস্কার করে দিই । অতিরিক্ত ভালবাসাতেই ওকে বেসিরভাগ সময়ে “তুমি” বলে ডেকে ফেলি। বোন কিন্তু সব সময়ে আমাকে তুই বলেই ডাকে।
“দাদা,পায়ে খুব ব্যাথা করছে, একটু টিপে দে না রে ।” মুখে হাসি ঝুলিয়ে বললো বোন। বোন যখন হাসে ওর গালে টোল পরে, ফলে ওর সুন্দর ফরসা মুখটা আরো সুন্দর দেখায়। আমি ওর পায়ের কাছে বসে পরলাম। বোন ওর চটি পরা পা দুটো আমার কোলে তুলে দিলে আমি যত্ন করে আমার আদরের বোনের পা দুটৌ টিপতে লাগ্লাম। এমন না যে আজি প্রথম বোনের পা টিপছি আমি। বোন এই “অনুরোধ” টা প্রায় রোজই করে, আর আমি ভাল দাদার মত ওর পায়ের কাছে বসে ওর পা টিপে দি। বন পা থেকে চটি খোলেনি, চটির ওপর দিয়েই ওর পা টিপে দিচ্ছিলাম। চটি পরা পায়ের পাতা থেকে ওর প্যান্টের ওপর দিয়ে ওর কাফ পর্যন্ত টিপছিলাম,আবার নেমে আসছিলাম ওর চটি পরা পায়ের পাতায় । মাঝে মাঝে ওর চটির ফাক দিয়ে হাত ঢুকিয়ে ওর খালি পায়ের পাতা টিপছিলাম । ছোট বোনের সেবা করতে কেন জানিনা ভীষন ভাল লাগে আমার। ওকে ভাল টিফিন করে খাওয়ানোই হোক,ওর জামা জুতো পরিস্কার করাই হোক, বা ওর পায়ের কাছে বসে মন দিয়ে ওর পা টেপাই হোক, আমাকে এক অদ্ভুত আনন্দ দেয়।
“দাদা,তোকে একটা কথা বলবো ? রাগ করবি না তো ?” আমি ওর ডান পা টা তুলে ওর পায়ের পাতায় চুমু খেয়ে বল্লাম, আমি কখনো তোমার ওপরে রাগ করেছি?” বোন মুখটা বিসন্ন করে বল্ল, “না দাদা,বন্ধুদের সাথে মজা করতে গিয়ে আমি একটা ভুল করে ফেলেছি।” বোনের মুখে বিশাদের ছায়া দেখে আমার মনট খারাপ হয়ে গেল। আমি ওর বাঁ পা তুলে ওর চটির তলায় চুম্বন করে বল্লাম, “কি ভুল বোন?” । “তোর আর আমার ব্যাপারে বারিয়ে বলে ফেলেছিলাম বন্ধুদের। তুই আমার কতটা সেবা করিস সেটা অনেক বারিয়ে বলে ফেলেছি। এখন ওরা বাজি ধরেছে আমার সাথে। আমি যা বলেছি সেতা সত্যি না দেখাতে পারলে ওদের কাছে আমি ছোট হয়ে যাব।” আমি বোনের পা টিপতে টিপতে বল্লাম,” তাতে কি হয়েছে বোন? তোমার বন্ধুদের সাম্নে আমি সেভাবেই তোমার সেবা করবো ,জেভাবে সেবা করার কথা তোমার বন্ধুদের বলেছ তুমি।” “না রে দাদা,আমি ত মজা করে খুব বারিয়ে বলেছিলাম। ওভাবে আমার সেবা কর্লে তোর সম্মান থাকবে না।”,বোন করুন মুখ করে বল্ল।
আমি বোনের ডান চটির তলায় চুম্বন করে বল্লাম,”বোনের সেবা করাতেই তো দাদার সম্মান। বোনের সেবা করলে দাদার আসম্মান হয় নাকি কখন? আমি ঠিক সেভাবেই তোমার সেবা করবো বোন যেভাবে তুমি বন্ধুদের বলেছ। ঠিক কি বলেছ তুমি ওদের?”
“বলছি, তার আগে কথা দে ঠিক ওভাবেই আমার বান্ধবীদের সামনে আমার সেবা করে আমার সম্মান রাখবি?” “হ্যাঁ বোন, আমি কথা দিচ্ছি। তুমি বল।” বোনের পা টিপতে টিপ্তে বলি আমি। “আমার ৩ বান্ধবি, রাই,সুচেতনা আর লিপি কে আমি বলেছি আমি স্কুল থেকে ফেরার আগে তুই আমার জন্নে টিফিন করে রাখিস। আমি বাড়ি ফিরলে তুই দরজার সামনে আমার পায়ের কাছে শুয়ে পরিস।আমি তোর বুকে উঠে দাড়িয়ে তোর শার্ট এ আমার জুতোর তলা মুছতে ঘরে ঢুকি। ঘরে ঢুকে আমি সোফায় বসি,আর তুই দরজা লক করে আমার জুতো পরা পায়ে মাথা রেখে আমাকে প্রনাম করিস। তারপর তুই শুয়ে পরিস আমার পায়ের তলায়।আমি তোর বুকের ওপর পা তুলে, পায়ের ওপর পা রেখে বসি। ওপরে থাকা পা টা তোর মুখের মাত্র ২ ইন্চি অপরে দোলাতে থাকি,আর তুই আমার অন্য পা টিপতেথাকিস। আমার দোলাতে থাকা পা তা মাঝে মাঝে তোর মুখে ,থতে লাগে,তুই কিছু বলিসনা তবু।আমার পা থেকে জুতো মোজা খুলে তুই এর্পর আমার পায়ে চটি পরিয়ে দিস। আমাকে সুস্সাদু টিফিন খেতে দিস এর্পর আর আমি টিভি দেখতে দেখতে টিফিন খাই। তুই গামলায় করে জল এনে আমার পা ধুয়ে দিস,আমার পা মুছে দিস। আমার জুতো পরিস্কার করে জত্ন করে তুলে রাখিস তুই, তারপরআমার পায়ের কাছে বসে আমার পা টিপিস। পা টেপা বা টিফিন ভাল নাহলে আমি তোকে থাপ্পর আর লাথি মারি। তুই কিছু বলিস্না, বরং আমার পায়ে মাথা রেখে ক্ষমা চেয়ে আর ভাল ভাবে পা টিপতে থাকিস। ঐ গল্প শুনে ওরা বিস্সাস করতে চায়নি। আমি ভুল করে শেষে চ্যালেন্জ করে ফেলি।ওরা ৩ জন কাল স্কুলের পর আমাদের বারি আসবে বলেছে। এখন তুই যদি এভাবে সেবা করতে না চাস ওরা আমাকে মিথ্যুক বলবে,আমাকে নিয়ে হাসাহাসি করবে।” বলতে বলতে বোনের মুখ আর করুণ হয়ে গেল,অর চোখ দিয়ে জল পরতে লাগলো।” আমি বোনের চটি পরা পা দুটো ২ হাতে ধরে তার ওপর নিজের মাথা টা নামিয়ে দিলাম। আমার দেবীর মত সুন্দরী বোনের পায়ে মাথা ঘষতে ঘষতেবল্লাম, “এভাবে বোনের সেবা করা ত যেকোন দাদার স্বপ্ন। বোনের সেবা করার জন্নেই তো দাদারা বেঁচে থাকে। তুমি কেঁদনা প্লিজ বোন। ঐভাবে তোমার সেবা করতে পারলে আমার জীবন ধন্য হয়ে যাবে।” বোন হাতের তালু দিয়ে চোখের জল মুছে বল্ল, “সত্তি বল্ছিস দাদা তুই রাজি? আমার বান্ধবিদের সামনে জদি তোর জামায় জুতোর ময়্লা মুছি বা তোর মুখে লাথি মারি তাও কিছু বলবি না তুই?” “না বোন, যতবার আমার মুখে লাথি মারবে তুমি ততবার তোমার পায়ে মাথা ঠেকিয়ে তোমাকে ধন্যবাদ জানাব।”
“আমার বান্ধবীরা কিন্তু বলেছে ওরাও তোর সাথে আমার মত আচরন কর্বে। ওরা লাথি মারলেও তুই কিছু মনে করবি না?” লিপি,রাই আর সুচেতনা কে চিনি আমি। ৩ জন এ আমার বোনের মতই সুন্দরী। আত সুন্দর ৪ জন মেয়ের সেবা করা তো ভাগ্যের ব্যাপার। “না প্রভু, মেয়েদের লাথি খাওয়া তো ছেলেদের কাছে চরম সৌভাগ্যের ব্যাপার।” আমি অনন্যার পায়ে মাথা ঘষতে ঘষতেবল্লাম। বোনের মুখে আবার হাসি ফিরে এল,আমার মাথায় আলতো করে একটা লাথি মেরে বল্ল, “কি বলে ডাকলি আমাকে?” “প্রভু বলে,তুমি তো আমার প্রভূই, আমার মালকিন,আমার আরাধ্য দেবী । তোমার সেবা করার চেয়ে বড় সৌভাগ্য আর কি হতে পারে আমার জীবনে?”
“শুয়ে পর দাদা, তোর বুকে পা রেখে বসে একটু টিভি দেখি।” আমি আমার প্রভুর পায়ের তলায় শুয়ে পরলাম। বোন ওর চটি পরা বাঁ পা টা রাখ্ল আমার গলার কাছে, আর বাঁ পায়ের ওপরে রাখা ওর ডানপা টা আমার মুখের ১ ইঞ্চি ওপরে দোলাতে লাগলো। আমি ভাল দাদার মত যত্ন করে বোনের বাঁ পা টা টিপতে লাগলাম। আর বোন ওর ডানপা দোলাতে লাগলো আমার মুখের ওপর, ওর চটির তলা বারবার আমার ঠোঁট স্পর্শ করতে লাগলো। আমি স্বপ্নেও ভাবিনি কখন এভাবে আমার বোনের সেবা করতে পারবো । যতবার ওর চটির তলা আমার ঠোঁট স্পর্শ করছিল ততবার আমি ওর চটির তলায় একে দিচ্ছিলাম গাঢ় চুম্বন। একটু পরে বোন ওর ডানপা টা আমার মুখের ওপর নামিয়ে দিল। আমার মুখ নিয়ে খেলতে লাগলো চটির তলা দিয়ে। আর আমি বাধ্য চাকরের মত ওর বাঁ পা টিপে চল্লাম। একটু পরে বোন ওর দুটো পাই আমার মুখে নামিয়ে দিল। আস্তে আস্তে ঘষতে লাগলো আমার মুখ, ওর চটির তলা দিয়ে। আর আমি ওর পা দুটো মন দিয়ে টিপে চললাম……………………………
পরদিন বিকেল ৪ টে ।আমি কলেজে যাইনি আজ। সারা দুপুর বোন আর তার বান্ধবীদের জন্য অনেক ভাল আইটেম রান্না করেছি, ঘর সাজিয়ে রেখেছি। আর এখন দরজার সামনে হাঁটুগেরে বসে আমার প্রভুদের জন্য অপেক্ষা করছি। অবশেষে অপেক্ষার অবসান হল। ওরা ৪ বান্ধবী ঘরে ঢুকলো। ঘরে ঢুকেই বোন দরজা লক করে দিল। ওরা ৪ জন ক্লাস ৯ এ পরে। ওদের পরনে স্কুলের সাদা শার্ট, সবুজ স্কার্ট, পায়ে মোজা আর জুতো। আমার বোন আর লিপির পায়ে সাদা স্নিকার আর রাই আর সুচেতনার পায়ে কালো মেরি জেন সু । আমি ওদের সবার পায়ে মাথা ঠেকিয়ে ভক্তিভরে প্রনাম করলাম। ওরা ৪ জন ই এত সুন্দর দেখতে যে ওদের দেখলেই আপনা আপনি মনে ভক্তি জেগে ওঠে ।
তারপর বোনের পায়ের কাছে শুয়ে পরলাম। বোন আমার বুকে উঠে দাঁড়াল। আমি আশা করেছিলাম আমার জামার ওপর বোন ওর জুতোর তলা মুছবে, কিন্তু ও আমার মুখের ওপর ওর জুতো পরা ডান পা টা রাখলো ।তারপরআস্তে আস্তে আমার মুখের ওপর ঘষতে লাগলো ওর ডান জুতোর তলা। এই জুতো পরেই বোন রাস্তা দিয়ে হেটে স্কুলে গেছে, স্কুল থেকে ফিরেছে। আর এখন রাস্তার ধুলো ময়্লা লাগা সেই জুতোর তলা বোন আমার সারা মুখে আমন ভাবে ঘসছে যেন এটা ওর দাদার মুখ না, কোন পাপোশ ! আমি অবাক হয়ে তাকিয়ে দেখতে লাগ্লাম আমার সুন্দরী বোন অনন্যা আমার বুকে জুতো পড়া পায়ে দাড়িয়ে,ওর বা পা আমার বুকে রাখা,আর ডানপা তুলে জুতোর তলার ময়্লা ওর নিজের দাদার মুখে ঘশে পরিস্কার করছে !!
আমার কপাল,নাক গাল,ঠোঁট, সর্বত্র ঘশে চলেছে ওর জুতোর তলা। ডান জুতোর তলা পরিস্কার হয়ে গেলে ডানপা টা আমার বুকে নামিয়ে রাখ্ল অনন্যা ,আর আমার মুখে বাঁ পা রেখে বাঁ পায়ের জুতোর তলা আমার মুখে ঘশে পরিস্কার করতে লাগলো। বোনের জুতোর তলার ময়্লা লেগে জেতে লাগ্ল আমার মুখের সর্বত্র। ঐকটু পরে আমার কপালের ওপর ওর বাঁ পা রেখে আমার চোখে চোখ রাখলো বোন, “সবার সামনে বের করতে লজ্জা পাচ্ছিস?”
“কি বার করবো প্রভু?”,আমি বল্লাম। “যেটা রোজ বার করিস”, বলে বোন মুখে হাসি ঝুলিয়ে জিভ বার করে দেখাল। আমি বুঝতে পারছিলাম না বোন কি চাইছে। আমি আমার জিভটা যতটা সম্ভব বার করে দিলাম, আর অবাক হয়ে দেখলাম বোন আমার জিভে ওর জুতোর তলা মুছতে শুরু করেছে !!! ও আমার জিভের ওপর এমন ভাবে ওর বা জুতোর তলা ঘসছে যেন এটা ভীষন নর্মাল ব্যাপার। ওর বন্ধুরা অবাক হয়ে দেখছে আমাদের। বাঁ জুতোর তলা আমার জিভে ঘশে নতুনের মত চকচকে করে ফেললো আমার বোন। জিভ শুকিয়ে গেলে আমি জিভটা মুখে ঢুকিয়ে ভিজিয়ে নিচ্ছিলাম আর বোনের জুতোর তলার “পবিত্র” ময়্লা গিলে খেয়ে নিচ্ছিলাম। তারপরবোনের জুতোর তলা মোছার জন্য আবার বার করে দিছ্ছিলাম আমার জিভ। বাঁ জুতোর তলা পরিস্কার হয়ে গেলে বোন ওর ডানজুতোর তলাও আমার জিভে ঘশে পরিস্কার করে ফেললো।
এরপর বোন নেমে দাড়াল আমার বুক থেকে আর রাই উঠে দারাল আমার বুকে।মুহুর্তের মধ্যে ওর ব্ল্যাক স্কুল জুতোর তলা আমার মুখ স্পর্শ করলো।আমার মুখের সর্বত্র ঘষতে লাগলো ওর জুতোর তলা। হঠাৎ আমার নাকের ওপর প্রবল জোরে লাথি মারলো প্রভু রাই, আমার চোখ ঝাপশা হয়ে গেল, কানে অস্পষ্ট শুনলাম “জিভ বার কর কুত্তা”। আমি পোষা কুকুরের মতই জিভ বার করে দিলাম, আর আমার ৪ বছরের ছোট বোনের বান্ধবী আমার জিভে ওর জুতোর তলার ময়লা মুছতে লাগলো। আমার কিনতু একটুও অপমানিত লাগছিল না, ওদের মত সুন্দরী মেয়ের সেবা করতে পেরে নিজের জীবন ধন্য মনে হচ্ছিল আমার।
সুচেতনা এরপর ওর বাঁ জুতোর তলাও আমার মুখে আর জিভে ঘশে পরিস্কার করে ফেললো ।তারপরআমার মুখের ওপর থুতু ফেলে ও নেমে দারালে সুচেতনা আমার বুকে উঠে দাড়াল। আমার মুখ আর জিভ কে এক ই ভাবে পাপোশের মত ইউস করে ও যখন নেমে দাড়াল তখন ওর কাল জুতো নতুনের মত চকচক করছে । এরপর লিপিও ওর সাদা স্নিকার এক ই ভাবে পরিস্কার করে নিল। পরিস্কার করা হয়ে গেলেও ও নেমে দাড়াল না, ওর বাঁ পা টা আমার নাকের ওপর রেখে চাপ দিল আর একই সাথে ওর ডানপা আমার গলার ওপরে রাখলো। আমার নিস্সাস বন্ধ হওয়ার উপক্রম হল, বুকটা হাপরের মত ওঠা নামা করতে লাগলো। আর আমার প্রভু লিপি আমাকে ওর্ডার দিল “পা টেপ”। ণিজের সব কষ্ট উপেক্ষা করে আমি লিপির বাঁ পা টা টিপতে লাগলাম। লিপি ওর বাঁ পা এমন ভাবে আমার নাকের ওপর চেপে ধরে আছে যাতে আমি নিষ্সাস না নিতে পারি, আর সেই অবস্থায় বাধ্য চাকরের মত আমি লিপির বাঁ পা টা টিপে চলেছি। আক্সিজেন এর অভাবে আমার জ্ঞান হারাবার উপক্রম হল, তবু আমি মনের সব জোর একত্রিত করে প্রভু লিপির পা টিপে চল্লাম।কতক্ষন টিপলাম মনে নেই,আস্তে আস্তে হাত অবশ হয়ে এল,আমি জ্ঞান হারিয় ফেল্লাম।
যখন জ্ঞান ফিরলো তখন দেখলাম আমি বাইরের ঘর থেকে টিভি রুম এ চলে এসেছি। আমার গলায় একটা ডগ কলার বাঁধা। ষেটা বোনের একহাতে ধরা, আর বোন ওর জুতো পরা পা ২ টো আমার মুখে রেখে টিভি দেখছে। লিপি,রাই আর সুচেতনা আমার বুকে আর পেটে জুতো পরা পা রেখে বসে আছে। ওরা ৪ জন নিজেদের মধ্যে গল্প করতে করতে টিভি দেখছে।
আমার জ্ঞান এসেছে বুঝতে পেরে বোন ওর জুতো পরা ডানপা দিয়ে সজরে আমার নাকের ওপর একটা লাথি মেরে বললো,”কি রে কুত্তা,প্রভুদের সেবা করতে কেমন লাগছে?” বোন এতজোরে লাথিটা মেরেছিল যে আমার আবার জ্ঞান হারানোর উপক্রম হল। তবু আমি বোনের ডানজুতোর তলায় গাঢ় চুম্বন করে বললাম “খুব ভাল লাগছে প্রভু,এভাবে তোমাদের সেবা করতে দেবার জন্য ধন্যবাদ।” বোন এবার বাঁ পা দিয়ে আমার কপালে লাথি মেরে বললো, ”যা ,এবার আমাদের জন্য খাবার নিয়ে আয়।”আমি ৪ প্রভুর পায়ে চুম্বন করে বল্লাম,”যথা আজ্ঞা প্রভু”। আমি উঠে গিয়ে ওদের জন্য খাবার এনে পরিবেশন করলাম ওদের। ওরা যখন খেতে লাগলো আমি ওদের পায়ে পরপর চুমু খেয়ে চললাম।ওরা ৪ জন পরপর বসে খাচ্ছিল আর আমি ওদের প্রত্যেকের প্রতি জুতো পরা পায়ের ওপর ৩ বার করে চুম্বন করছিলাম।সবার পায়ে চুম্বন করা শেষ হলে আবার প্রথম থেকে শুরু করছিলাম। প্রভুদের খাওয়া হয়ে গেলে ওরা ওদের প্লেট নামিয়ে রাখলো মেঝেতে। ”নে কুত্তা,যা পরে আছে খেয়ে নে”,সুচেতনা বললো । ওরা সবাই প্লেটে থুতু ফেললো,তারপর জুতো পরা পা থালার ওপর তুলে দিল।
আমি হাত দিয়ে খেতে গেলে রাই আমার গালে থাপ্পর মেরে বল্ল, ”কুত্তা রা হাত দিয়ে খায়্না,মুখ দিয়ে খা। আমি “ভোউ ভোউ” বলে জবাব দিলাম আর কুকুরের মত প্রভুদের পা রাখা থালা থেকে ওদের আধ খাওয়া খাবার খেতে লাগলাম। আমার গলার ডগ কলার ধরে লিপি মাঝে মাঝে টান্তে লাগ্ল। খাওয়া হয়ে গেলে আমি প্লেট তুলে ধুয়ে রাখলাম। প্লেট ধোয়া হলে ওদের পায়ের কাছে হাঁটু গেরে বসে বল্লাম “এবার কি করবো প্রভু?” বোন গালে চড় মেরে বললো সোফার তলায় শুয়ে পর। আমি শুয়ে পরলাম। আমি ভেবেছিলাম প্রভুরা আমার মুখে বুকে পা রেখে টিভি দেখবে ।কিন্তু বোন সোফার ওপরে উঠে দাড়াল,আর তারপর…… আমার মুখের ওপর……। লাফিএ পরলো সোফা থেকে !!! ওর বাঁ জুতোর তলাটা পরলো আমার কপাল আর চোখের ওপর আর ডান জুতোর তলাটা আমার নাক আর মুখের ওপর। আমার মনে হল আমার নাকটা বুঝি ভেঙ্গে গেছে।কিছু বোঝার আগেই রাই আমার নাকের ওপর পা রেখে সোফায় উঠে দাড়াল, আর লাফ দিয়ে নামলো আমার মুখে। ততক্ষনে সুচেতনা,লিপি আর বোন ও আমার বুকে পা দিয়ে সোফায় উঠে দাড়িয়েছে। আমাকে সামলে নেওয়ার বিন্দুমাত্র সময় না দিয়ে সুচেতনা,লিপি আর বোন আমার মুখের ওপর জুতো পরা পা দিয়ে লাফিয়ে নামলো। ওদের এই লাফ দেওয়া চক্রাকারে চলতেই থাকলো। আমাকে পায়ের তলায় মারিয়ে ওরা উঠে যাচ্ছিল সোফায় আর আমার বুকে,মুখে গলায় নির্বিচারে লাফিয়ে নামছিল। আমার কষ্ট হচ্ছিল ভীষন কিনতু জে প্রবল আনন্দ পাচ্ছিলাম তার কাছে কষ্টটা কিছুই না।
১ ঘন্টা ধরে ওদের এই খেলা চল্লো । তারপর ওরা হাফিয়ে গেলে আমি উঠে সোফাটা মুছে পরিস্কার করে দিলাম। আমার ৪ প্রভু বসলে ওদের ৪ জনের পায়ে মাথা ঠেকিয়ে প্রনাম করলাম,ওদের জুতো পরা পায়ে চুম্বন করে ধন্যবাদ দিলাম আমার মত এক ক্ষুদ্র জীব কে ওদের পবিত্র পায়ের তলায় স্থান দেওয়ার জন্য। এরপর আমি হাতজোর করে ওদের পায়ের সামনে হাঁটু গেরে বসলাম আর ওরা আমার মুখে লাথি মারতে লাগলো । ৮ টা বাজলে রাই,সুচেতনা আর লিপি উঠে পরলো বাড়ি যাওয়ার জন্য । আমার বাবা মা র অফিস থেকে ফিরতে তখন ১ ঘনটা দেরি। আমি ওদের জুতো পরা পায়ে চুম্বন করে বিদায় জানালাম।ওরা বললো এখন থেকে রোজ বিকেলে ওরা আসবে “আমাকে নিয়ে খেলতে।” শুনে আনন্দে আমার ২ চোখ জলে ভিজে গেল। ওরা চলে যেতে বোন দরজা লক করে আমার কলার ধরে টানতে টানতে আমাকে ভিতরের ঘরে নিয়ে এল। আমি ৪ হাত পায়ে বোনের জুতোয় চুম্বন করতে করতে টিভি রুমে ফিরে এলাম। বন সোফায় বসে টিভি চালাল আর আমি ওর পায়ের ওপর উপুড় হয়ে ওর জুতোর ওপর চুম্বন করতে লাগলাম। বোন আমার মাথায় জুতো পরা পা বোলাতে বোলাতে বললো , “কাল তোকে যা বলেছিলাম সব বানানো গল্প রে কুত্তা। আমরা ৪ বন্ধু মিলে তোকে আমাদের কুকুর বানানোর প্ল্যান করেছিলাম। আমি জানতাম তুই আমাকে কতটা ভালবাসিস, আমার কোন অনুরোধ তুই ফেরাতে পারবি না। তাই এই প্লান করেছিলাম।” আমি বোনের জুতোয় চুমু খেতে খেতে বল্লাম “ঠিক করেছ প্রভু। আমার জায়গা তোমাদের জুতোর তলাতেই ।”

। আমি কলকাতা থেকে রাত এর ট্রেনে শিলিগুড়ি তে আমার বাড়ি ফিরছিলাম। রাতে খেয়ে সবাই শুয়ে পর্লো। আমার সীট নিচে। উল্টো দিকের সীটে আমাদের কলেজের একটা জুনিয়র মেয়ের সীট পরেছিল, অর নাম অপরুপা। নামের মতই অপরুপ দেখ্তে ওকে, সারা কলেজের ড্রিম গার্ল। আমি একবার কথা বলার চেষ্টা কর্লাম, ও পাত্তা দিল না, শুয়ে পর্লো। আমিও শুয়ে পরেছিলাম। একটু পরে এক station থেকে 3 টে মেয়ে উঠলো ।দেখে মনে হয় ১৮ মত বয়েস ওদের। ৩ জনের এ পরনে টপ ,জিন্স আর টেনিস শু । ওরা আমাকে উঠিয়ে দিয়ে বল্ল ওরা বস্বে ওই সীটে । আমি অবাক হয়ে বল্লাম- এটা আমার সীট। আমি তোমাদের সীট ছেড়ে দিলে আমি বসব কোথায় ? একটা মেয়ে হাসি মুখে মেঝের দিকে আঙ্গুল দেখিয়ে বল্ল- কেন, নিচেই তো শুতে পারিস। আমার অপরিচিত ৩ তে মেয়ে, আমার চেয়ে ছোট, আমাকে তুই বল্ছে? আমার কি যে হল, আমি আমার বিছানা নিচে মেঝেতে নামিয়ে দিয়ে ওদের বল্লাম, ঠিক আছে, তোমরা মেয়ে, তোমরা বস। আমি নিচে শুয়ে পর্ছি। ওরা ৩ জনেই গল্প কর্তে কর্তে বসে পর্লো। আমাকে এক্বার thanx ও বল্ল না। আমি অদের ৩ জনের ঠিক পায়ের কাছে বিছানা করে সুয়ে পর্লাম মেয়ে ৩ টের পায়ের কাছে শুয়ে এক্টু ঘুমিয়ে পরেছিলাম। ঘুম ভাঙ্গল বুক আর পেটে কিছুর স্পর্শে। তাকিয়ে দেখি ওদের মদ্ধে ২ জন মেয়ে আমার পেটে আর বুকে নিজেদের জুতো পরা পা দুটো তুলে বসে গল্প কর্ছে। ওরা আমাকে তাকাতে দেখে হাস্লো . যে মেয়েটা আমার বুকে পা রেখে বসেছিল সে বল্ল – তুই যখন আমাদের পায়ের কাছেই সুয়ে আছিস তখন ভাব্লাম তোকে footrest হিসাবে ব্যবহার করি। জানালার পাশে যে মেয়েটা বসেছিল সে পা দুটো রেখেছিল আমার মাথার পাশে। সে আমার চোখে চোখ রেখে বল্ল, – আমিও তোর মুখে পা রাখ্বো ভাব্ছি। তুই তো এখন আমাদের ফুটরেস্ট। আমি বাধা দিতে চাইছিলাম। কিন্তু কি যে হল, মেয়েটার সুন্দর মুখের দিকে তাকিয়ে আমার মুখ থেকে বেরিয়ে এল – নিষ্চয় প্রভু। আমার মুখে তুমি পা রাখ্বে এ তো আমার পরম সৌভাগ্য। আমার মুখে প্রভু ডাক শুনে ওরা হাসিতে ফেটে পর্লো। তারপর আমার প্রভু র ২ টো পাই আমার মুখের অপর রেখে ওর জুতোর তলা দুটো আমার সারামুখে ঘস্তে লাগ্ল। আশ্চর্যের ব্যাপার, খারাপ লাগার বদলে এক দারুন ভাল লাগায় মন ভরে গেল।প্রভু কিছুক্ষন পর আমার মুখে জুতোর তলা ঘসা থামিয়ে আমার মুখে এক্টা লাথি মেরে বল্ল, প্রভুর জুতোর তলায় ময়্লা লাগ্লে পোষা কুকুর কিভাবে পরিস্কার করে জানিস ? আমি মুখে কিছু না বলে জিভ টা লম্বা করে বার করে দিলাম। ওপরে হাসির রোল উঠলো আর আমার প্রভু আমার জিভে জুতোর তলা ঘসে পরিস্কার কর্তে লাগ্ল। যেটা আমার জিভ, সেটা আমার অপরিচিত এই মেয়েটির কাছে পাপোশের বেশি কিছু না। ও আমার জিভে ঘশে নিজের ২ টো জুতোর তলাই পরিস্কার করে ফেল্ল। তারপর অন্য ২ টো মেয়েও এক এক করে ওর সাথে জায়্গা বদল করে আমার জিভ আর মুখ কে পাপোশ হিসাবে ব্যাবহার কর্লো। সকাল হতে ওরা মাল্দা তে নেমে গেল। আমাকে যাওয়ার আগে বল্ল্ল,- গুড বাই ডগি , তারপর পা দিয়ে আমার মাথা ঘষে আদর করে চলে গেল ওরা ৩ জনে। আমি এই ঘটনার ঘোর কাটিয়ে উঠে বস্তে যাব আমার সীটে ,
দেখি ঘুম ভেঙ্গে উথে অপরুপা আমার দিকে তাকিয়ে আছে। আমাকে ওর দিকে তাকাতে দেখে গম্ভীর গলায় বল্লো, উঠে কোথায় যা্চ্ছিস কুত্তা, আমার ফুটরেস্ট দর্কার। আমার কি যে হল, হামাগুড়ি দিয়ে অপরুপার কাছে গিয়ে ওর জুতোর অপর চুমু খেতে লাগ্লাম। ওর পরনে টপ আর জিন্স , পায়ে মিলিটারী স্টাইলের কালো বুট জুতো। আমি আমার কলেজের জুনিয়র মেয়ে অপরুপার একটা বুটের ওপর চুম্বন কর্তে লাগ্লাম, ও অন্য বুট জুতো পরা পা টা আমার মাথায় ঘষে আমায় আদর কর্তে লাগ্লো। এক্টু পরে অপরুপা হুকুম কর্লো– সোজা হয়ে শো। আমি সোজা হয়ে অপরুপ সুন্দরী অপরুপার পায়ের তলায় শুলাম আর জিভ্টা বার করে দিলাম জতটা সম্ভব। অপরুপা আমার মুখ আর জিভে বু জুতোর তলা বুলিয়ে আদর কর্তে লাগ্লো। আমার প্রভু অপরুপার জুতোর তলা, জুতোর তলার প্রতিটা খাজ ও আমার জিভের সাহায্যে চেটে নতুনের চেয়েও বেশি পরিস্কার করে দিলাম। আমার গলায় train এ ব্যাগ বাধার লোহার চেন টা পরিয়ে দিয়ে বল্লো অপরুপা, আজ থেকে তুই আমার পোষা কুত্তা। সব্সময় আমার পায়ের কাছে থাক্বি, এমনকি কলেজে ফিরেও। নিজের সৌভাগ্যকে বিষ্বাস হচ্ছিল না আমার। যে মেয়ের পাশে বসার সৌভা্গ্য কতো ব্রিল্লিআন্ট ছেলের ও পুরন হয় না, আমি এখন থেকে রোজ তার পায়ের স্পর্শ পাব ? আমি আনন্দে ডাক ছারলাম, ভঊউ।ত ট্রেন স্টেসনে এ পৌছালে অপরুপা আমার গলার চেন ধরে টান্তে টানতে নিয়ে চললো। পিছনে ওর সব মাল বইতে বইতে চললাম আমি, ওর গর্বীত ক্রীতদাস।

দিদির সেবা

সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর থেকেই মন দিয়ে দিদির সেবা করছিল অজয় ।
রোজি করে । আজ সকাল ৬টায় ঘুম থেকে উঠে প্রথমে দিদির জন্যে ব্রেক্ফাসস্ট বানায় ও , সঙ্গে চা । তারপর দিদির ঘরে গিয়ে দিদির পায়ে চুম্বন করে ঘুম ভাঙ্গায় দিদির। মুখে হাসি ঝুলিয়ে উঠে দাড়ায় ওর দিদি সীমা । ও দিদির পায়ের কাছে হাটুগেরে বসে দিদির পায়ে লাল চটি পরিয়ে দেয় । সীমা বাথ্রুমে চলে যায় ফ্রেশ হতে । ফিরে এসে সীমা আরাম করে গদি মোড়া চেয়ারে বসে টিভি দেখতে দেখতে খেতে থাকে । ওর ২ বছরের ছোট ভাই অজয় ওর পায়ের কাছে বসে মন দিয়ে ওর ২ টো পা টিপ্তে থাকে । এক্টু পরে হঠাত ওজয়ের মুখে সজরে লাথি মারে সীমা । অজয় উল্টে পরে যায় । “ মন কোথায় থাকে তোর ? চায়ে চিনি কম কেন ? অজয় ভয় পেয়ে যায় । উঠে দিদির পায়ে চুমু খেয়ে ক্ষমা চাইতে থাকে । সীমা লাথি মেরে ওকে সোজা করে দেয় । তারপর ওর ব্ঁ হাতের তালুর ওপর ডান পা রেখে উঠে দাড়ায় । বাঁ পা টা রাখে নিজের ২ বছরের ছোট ভাই অজয়ের মুখের ওপর । ভাই এর মুখটা পায়ের তলা দিয়ে ঘষতে থাকে। ওজয় দিদির পায়ের তলায় চুমু খেয়ে ক্ষমা চাইতে থাকে দিদির কাছে । একটু পরে সীমা ভাইয়ের মুখটা বাঁ পা দিয়ে চেপে ধরে । অজয়ের নাকের ফুটো বন্ধ হয়ে যায় , বাতাসের অভাবে ওর দমবন্ধ হয়ে আসে । তবু ওর বড় ভাল লাগে তার ওপর দিদির এই অত্যাচার । দিদির পায়ের তলায় চুম্বন করে দিদিকে ধন্যবাদ দিয়ে যেতে থাকে ও ।

goddess and her servant

সারাদিন বান্ধবীদের সাথে হইচই করে ঘুরে ক্লান্ত হয়ে বাড়ি ফিরলো রাহুলের ছোট বোন প্রিয়া। সদ্য কলেজে ওঠা প্রিয়া সারাদিন ঘুরে, সিনেমা দেখে, শপিং করে ক্লান্ত হয়ে পরেছিল । রাহুল জানতো কিভাবে ক্লান্ত ছোট বোনের সেবা করতে হয় । ওর কাছে বোন মানে ভগবানের চেয়েও বেশী কিছু। প্রিয়া নিজের ঘরে এসে খাটে শুয়ে পরলো, শপিং এর ব্যাগ দাদার হাতে ধরিয়ে দিয়ে। রাহুল সযত্নে সেগুলো গুছিয়ে রাখলো। তারপর বোনের ঘরে এসে বোনের পায়ের কাছে হাটুগেরে বসে পরলো । সদ্য ১৮ এ পরা প্রিয়া কে লাল হলুদ ফুল আঁকা সাদা টপ, কাল স্কার্ট আর আকাশি বুটে অপূর্ব সুন্দরী লাগছিলো। রাহুল ৩ বছরের ছোট বোনের আকাশি বুট জুতো পরা পায়ে মাথা ঠেকিয়ে প্রনাম করলো । তারপর ভালো দাদার মত বোনের বুট জুতোর তলা জিভ দিয়ে চেটে পরিষ্কার করতে লাগলো । বোনের জুতোর তলার যাবতীয় ময়্লা সেচ্ছায় জিভ দিয়ে মুখ গহ্বরে টেনে নিতে লাগলো রাহুল। প্রিয়া হাসিমুখে দাদার সেবা নিতে লাগলো , আর মাঝে মাঝে দাদার মুখে বুট জুতো পরা পা দিয়ে লাথি মারতে লাগলো । বোনের জুতো চেটে নতুনের মত পরিষ্কার করে দিল রাহুল, তারপর সযত্নে বোনের জুতো খুলে রেখে আসলো জুতো রাখার তাকে । বোনের পা ধুয়ে দিল গরম জল এনে , সেই জলটা চরণামৃত ভেবে ভক্তিভরে পান করলো । তারপর বোনের পায়ের কাছে বসে বোনের পা দুটো কোলে তুলে নিয়ে যত্ন করে টিপ্তে লাগলো বাধ্য দাদা রাহুল।

( online translator দিয়ে translate করায় অনেক ভূল থাকতে পারে বাংলা বানানে । time পেলে পরে edit করবো । )

তখন আমি ১১ এ পরি। সকালে উঠে সবে একটা সিগারেটে ধরিয়েছি ছাদে গিয়ে, হঠাৎ পাশ থেকে শুনি ‘ ক্লিক’ করে একটা শব্দ, সঙ্গে হাসির আওয়াজ । তাকিয়ে দেখি আমার বোন ছাদের দরজার ফাঁক দিয়ে মোবাইল বার করে আমার সিগারেট খাওয়ার ছবি তুল্ছে আর খুক খুক করে হাস্ছে। আমি সিগারেত ফেলে ওর দিকে তেরে গেলাম।’ এই কি কর্ছিস ?’ ও মবাইল নিয়ে নিছে পালাল। মা বাবার সাম্নে ওকে কিছু বল্তেও পার্লাম না। পরে ওকে একা পেয়ে বল্লাম, ‘ ওই ছবিটা ডিলিট কর সিগ্গির।’ অ বল্ল কেন ডিলিট কর্ব ? মা দেখ্লে খুব খুসি হবে ত … আমি বাধ্য হয়ে বল্লাম অমন করিস না বন, তুই যা বল্বি করবো । প্লিজ ওই ফোটো টা দেখাস না কাউকে। বোন সুনে হাস্তে হাস্তে বল্ল , জা বল্ব তাই কর্বি?’ বলে হি হি করে হাস্তে লাগ্ল। এক্তু পরে মা বাবা কাজে বেরিএ গেল। আমাদের স্কুলে তখন গরমের ছুটি । এক্তু পরে আমার কাকুর মেয়ে সিমা এল। বন এর মত অ ৯ এ পরে। বন রিমা , সিমার কানে কানে কিছু বল্ল, সুনে অরা দুজনেই খিক খিক করে হাস্তে লাগ্ল। বুঝ্লাম আমাকে নিএ কিছু এক্তা করার প্লান করেছে দুজনে। আমি ভাব্লাম বাইরে যাব। কিন্তু ঘর থেকে বেরতে যেতেই বন বল্ল ‘ কথায় জাচ্ছিস?’ আমি বল্লাম মাঠে । বন রিমা তাই সুনে হাসি মুখে বল্ল , বেশ জা, আমিও তোর চিগারেট খাওআর ফটো তা বাবার মবাইল এ সেন্দ করি। আমি ভয় পেয়ে গেলাম। বল্লাম ‘please এরকম করিস না । তুই না চাইলে আমি জাব না। কি কর্তে হবে বল।’ বন বল্ল’ মা বলে গেছে ঘর পরিস্কার করে রাখ্তে। তুই ঘর ঝাট দে, তার্পর ঘর মোছ্। আমি আর সিমা বসে বসে tv দেখি। আমি পর্লাম মহা ফেসাদে। ছেলে হয়ে আমি ঘর মুছবো আর বন বসে বসে দেখ্বে ? কিন্তু কি আর করা জাবে ? নাহলে আমার চিগারেট খাঅআর ছবি বন বাবাকে দেখালেই আমি মরেছি।
অগত্তা কি আর কর্ব, নিম্রাজি হয়ে হাতে ঝাটা নিয়ে ঘর ঝাত দিতে লাগ্লাম। শোওয়ার ২ টো ঘর ঝাত দিএ tv র ঘরে এসে দেখি আমার দুই বন tv দেখ্ছে। সিমা পায়ে সাদা স্নিকার পরে এসেছিল, সেতা পরেই চেয়ার এ বসে আছে। রিমার পায়ে ঘরে পরার চটি। দুজনেরি পরনে স্কার্ট আর টপ। আমি ঝাত দিতে লাগ্লাম আর ওরা পায়ের অপর পা তুলে বসে আমাকে ঘর ঝাত দিতে দেখ্তে লাগ্ল আর মিতি মিতি হাস্তে লাগ্ল। আমার বহুত রাগ হতে লাগ্ল দুই বোন এর অপর। tv র ঘরে ঝাত দিয়ে রান্না ঘর ঝাত দিতে গেলাম। ফিরে এসে দেখি সিমা জুতো পরে সারা ঘরে ঘুর্ছে। ফলে সারা ঘরের মেঝেতে অর জুতর ছাপ পরেছে। ফলে আমাকে আবার ঝাত দিতে হবে। আমি ওর দিকে তাকিএ বল্লাম ‘ এতা কি কর্লি?’ ও মুখে হাসি ঝুলিয়ে বল্ল ‘ তুই ঘর ঝাত দিবি বলে কি আম্রা হাটা বন্ধ করে দেব?’ আমি বল্লাম, ‘ হাট, কিন্তু জুত টা ত খুল্তে পারিস।’
রিমা পাশ থেকে বল্ল,’ না, photo তা বাবাকে পাঠাতেই হবে দেখ্ছি।’ কি আর কর্ব আমি , ছোট বোন আমাকে blackmail কর্ছে। আমি বল্লাম, please বলিস না বোন। রিমা বল্ল ‘ ওত সহজে হবেনা। তুই আমাদের অসম্মান করেছিস। ভাল করে ক্ষমা চা ।’ সিমা এসে অর পাসে chair এ বসে পর্ল। আমি কি আর করি, ওদের দুজনের পায়ের কাছে হাটুগেরে বসে পরলাম। হাতজোর করে বল্লাম ‘ আমার ভূল হয়ে গেছে। এরকম আর কখন হবেনা। please, এবারের মত ক্ষমা করে দাও। ‘ আমাকে ওদের পায়ের সাম্নে হাটুগেরে বসে ক্ষমা চাইতে দেখে ওরা হাসিতে ফেটে পর্ল। দুজনে দুজনকে জরিয়ে ধরে হো হো করে হাস্তে লাগ্ল। আমি ক্ষমা চেয়ে যেতে লাগ্লাম। একটু পরে ওরা উঠে বাইরে চলে গেল। আমি সিমার জুতর ছাপ গুলো একটা কাপড় দিয়ে ঘসে তুল্তে লাগ্লাম। তোলা হলে ঘর মুছতে জাব, আমার দুই বোন ঘরে ফিরে এল। ওরা কি কর্তে গিএছিল বুঝ্তে পার্লাম। আর কিছু না, আমার কাজ বারিয়ে মজা করা উদ্দেস্শ ওদের। বাইরে ধুল মাটিতে ঘুরে জুতো ভর্তি ময়্লা নিয়ে সব ঘর মারিয়ে ভেতরের tv এর রুম এ আমার সাম্নে এল। আমি রাগ আর অসহায় ভাব মেসান দৃষ্টি তে ওদের দিকে তাকালাম। ওরা আবার হাসিতে ফেটে পর্ল আমার দিকে তাকিয়ে।
ওরা দুজনে আমার দিকে তাকিয়ে হাস্তে হাস্তে সার ঘর জুত পরা পায়ে মারাতে লাগ্ল। ধুর ছাই, কি কর্তে জে ছাদের দর্জা না লাগিএ ফুকছিলাম সকালে? নিজেকেই নিজে গাল দিলাম। কি আর করি, আবার আগের মত ওদের সাম্নে হাটু গেরে বস্লাম। দুই বোন এর পায়ের দিকে তাকিয়ে কান্না ভেজা গলায় বল্লাম ‘ please, এরকম করিস না। আমি তো তোদের কন ক্ষতি করিনি। কতবার ঘর পরিস্কার কর্ব বল? তোরা যা বল্বি সব শুনবো । সুধু এভাবে ঘর নংরা করিস না।’ আমি কাদতে কাদতে ওদের পায়ের কাছে মেঝেতে মাথা নামিয়ে দিলাম। সিমা চোখ পাকিয়ে বল্ল’ জা বল্ব সুনবি ত?’ আমি বল্লাম’ হা, প্লিজ সুধু এরকম কর না।’ সিমা বল্ল, ঠিক আছে, আমরা চুপ করে chair এ বসে যাচ্ছি। তুই শুধু তোর হাফ প্যান্ট এর চেন টা খুলে ঘর ঝাট দে এবার।’ আমি যেন আকাশ থেকে পর্লাম।
‘ কি, তদের সাম্নে আমি pant এর chain খুলবো কিভাবে? please আমার সাথে এরকম মজা করিস না, তোরা আমার ছোট বোন হস।’ রিমা চোখ পাকিয়ে বল্ল ‘ আর বোন এর কর্তব্ব হল দাদা পেকে গিয়ে ফুকতে সিখলে বাবাকে সে খবর জানিএ মার খাইয়ে তাকে আবার ঠিক পথে আনা। আমি সেতা কর্ব, না তুই আমার কথা সুন্বি ? আমি ত তোকে pant খুল্তে বল্ছিনা। সুধু চেন খুল্লে তার ফাক দিএ কিছু দেখা জায় নাকি ?’ বাবার হাতে মার খাওআর ছেয়ে বন এর কথা মেনে নেওআ অনেক ভাল বলে মনে হল। আর বোন ঠিক এ বলেছে। আমার নুনু সাহেব betray না কর্লে শুধু প্যান্ট এর চেন খুল্লে ওরা কিছুই দেখ্তে পাবেনা। আমাকে নিয়ে ওরা এক্তু মজা কর্তে চাইছে, কি আর কর্ব ? আমি মাথা নিছু করে বল্লাম ঠিক আছে, তোরা জা চাইছিস তাই করবো আমি। সুনে ওরা এ ওর মুখের দিকে চেয়ে হাসলো। তারপর সিমা আমার কাছে এসে আমার pant এর চেন টা ডান হাতে ধরে এক্তানে নামিএ দিল। অহ, ওদের সে কি হাসি !!! ওরা পাগলের মত হাস্তে লাগ্ল আর আমি মনে মনে আমার নুনু বাবাজি কে বল্তে লাগ্লাম please, বাইরে বেরিয়ে ছোট বোন দের সাম্নে আমার শেষ সম্মান টুকু নষ্ট কর না।

এক্তু পরে হাসি থামিএ রিমা বল্ল,’ জা, এবার ঘর টা ঝাট দিয়ে মুছে ফেল।’ আমি ওদের সাম্নে থেকে অন্য ঘরে গিয়ে বাঁচলাম। ৩০ মিনিট পর সব ঘর ঝাট দেওআ, মোছা সেরে ওদের সাম্নে গিয়ে দারালাম। সিমা ‘ আমার গাল টিপে দিয়ে বল্ল “গুড বয়”, যেন আমি একটা বাচ্চা ছেলে, এমন ভাবে। সিমা বল্ল চিগারেট খাওআ ছেলে ভাল ছেলে হয়ে গেছে। তাই ছোট ছেলে টা কে আমি এখন একটা prise দেব । বলে অ chair এর ওপর উঠে দারাল। অর ডান হাতে নিজের মোবাইল টা ধরে বল্ল,’ কি রে বাচচা, mobile টা চাই নাকি?’
ওটা পেলে আর আমাকে পায় কে? ওই photo টা ডিলিট কর্তে পার্লে আমি বাচি। রিমা বল্ল, ‘ লাফিয়ে উঠে নিতে হবে। ‘ আমার মাথা থেকে অনেক উচুতে মোবাইল ট। আমি সব ভুলে জতটা সম্ভব বেসি লাফ দিলাম। হায় রে, আমি ভুলেই গিএছিলাম আমার pant এর চেন খোলা !! আমি লাফালাম, আর আমার নুনুও লাফের সাথে চেন এর ফাক দিয়ে বেরিয়ে গেল। আমি নিচে নামতে দেখি নুনু বাবাজি লজ্জা সরমের মাথা খেয়ে চেন এর বাইরে বেরিএ আছেন। তাই দেখে দুই বন এর সে কি হাসি !!!! লজ্জায় আমার মুখ পুর লাল হয়ে গেল। আমি নুনুটা হাত দিয়ে আবার pant এর ভেতরে চালান কর্তে গেলাম। রিমা মুখ ট গম্ভির করে বল্ল, ” লেংটু খোকা, তোর mobile তা চাই না তাহলে?” বোন আমাকে লেংটু বলে ডাকলো ? লজ্জায় আমি আরো লাল হয়ে গেলাম, নুনু টা কেন জানিনা বোন এর কাছে অপমানিত হয়ে আর সক্ত আর লম্বা হয়ে মাথা উচিয়ে দারাল। আমি বন দের সামনে আর ওটাকে pant এ ঢোকাতে সাহস পেলাম না। আমার গুপ্ত সম্পদ চোখের সাম্নে দেখে রিমা আর সিমা হ হ করে হাস্তে লাগ্ল। আমি লজ্জা সরমের মাথা খেয়ে আবার মবাইল তা ধরার জন্নে লাফ দিলাম। আমার হাত mobile তার গা ছুয়ে বেরিএ গেল, লাভের মধ্ধে আমার নুনু লাফের সঙ্গে লাফিয়ে উঠলো আমার দুই বোন এর সাম্নে। সে কি হাসি ওদের আমার নুনুকে লাফের সঙ্গে নাচতে দেখে !
আমি লজ্জায় লাল হয়ে যাওয়া মুখ নিয়ে একের পর এক লাফ দিতে লাগ্লাম mobile তা ধরার জন্নে। আমি যতই উচুতে লাফাই, রিমা mobile টা তার চেয়ে একটু উচুতে তুলে ধরে। লাভের মধ্ধে লাফের সঙ্গে আমার নুনুটা লাফিএ দুল্তে থাকে। দুই বোন তাই দেখে পাগলের মত হাস্তে থাকে। প্রায় ৩০ বার লাফ দেওআর পর আমি লাফ দিয়ে বা হাতে বোন এর ডান হাত টা ধরে ডান হাত দিয়ে বোনের ডান হাতে ধরে থাকা mobile তা ছিনিএ নিলাম। ব্যাশ, আমাকে আর পায় কে !
আমি photo galary খুলে প্রথমেই আমার cigarette খাওআর photo তা delete কর্লাম, তার্পর নুনু বাবাজিকে pant এর ভেতরে চালান কর্লাম। উফ্, অবসেশে সান্তি পেলাম তাহলে !!
কিন্তু কথায় শান্তি ?
রিমা আর সিমার দিকে তাকিয়ে দেখি ওরা তখন আমাকে দেখে হাস্ছে। হাসি থামতে সিমা বল্ল “ওরে গাধা, তোর কি ধারনা আমার mobile এ তোর ওই photo transfer না করেই রিমা তোকে ওটা delete কর্তে দিয়েছে? সত্তি, তোরা ছেলেরা গরুর ও অধম। ”
মুহুর্তে সব আনন্দ উবে গেল আমার। সিমা এগিয়ে এল আমার দিকে। আমার সাম্নে দারিয়ে একটানে আমার প্যান্ট এর চেন টা খুলে দিল। তারপর বাঁ হাতের তালু বন্দি করে বের করলো আমার নুনুটা। ওর সুন্দর ফরসা হাত দিয়ে নাড়তে লাগ্ল আমার নুনুতা।
humiliation তখন ভুলে গেছিলাম আমি, আমার সারা দেহ জুরে ছরিয়ে পর্ছিল এক দারুন সুখ। সিমার হাত আমার অঙ্গ বরাবর ওপর নিচ কর্ছিল। একবার ওর হাত নেমে আস্ছিল আমার অঙ্গের গোড়ায়, পরক্ষনেই ওর হাত আমার নুনুর গোড়ায় এসে পউচাচ্ছিল। উফ্ফ্ফ্ফ্ফ, সে জে কি সুখ, বলে বোঝান যাবেনা। রিমা ততখনে chair থেকে নেমে আমার পাশে এসে দারিয়েছে। হঠাৎ রিমা ওর ডান হাত দিয়ে আমার বা গালে বেশ জোরে এক্তা থাপ্পর মার্ল। আমি কিছু বঝার আগেই ওর বা হাত আমার ডান গালে আঘাত করলো আবার। আমার ছোট বোন আমাকে এভাবে চড় মারলো ?
আমি ভেবাচেকা খেয়ে দারিয়ে গালে হাত বলাতে লাগ্লাম। আমার নুনুটা সিমার হাত থেকে নিয়ে রিমা আমার নুনুটা ওর ডান হাত দিয়ে আস্তে আস্তে নাড়তে নাড়তে বল্ল, ” আমি তোকে মোবাইল direct নিতে বলেছিলাম। লাফানোর পর আমার হাত ধরে টেনে তুই cheat করেছিস। তাই তোকে আমাদের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে।” এই বলে বোন আমার হাতে থাকা ওর mobile টা নিয়ে নিল। আমার নুনুটা তখন রিমার হাতের তালুতে বন্দি, আস্তে আস্তে আমার নুনুটা ডান হাত দিয়ে ঘস্ছে আমার বোন। ওর চোখে মুখে একটা অদ্ভুত হাসি।
এই অপমান, সঙ্গে যৌনাঙ্গ জুরে আমার ফরসা, সুন্দরি বোন এর স্পর্শ, সব মিলিয়ে আমার কেন জানিনা বেশ ভালই লাগ্তে লাগ্ল। আমি মাথা নিচু করে বল্লাম, “sorry বোন, আমার ভুল হয়ে গেছে। আমাকে ক্ষমা করে দাও।” পাশ থেকে সিমা বল্ল, “এতে হবেনা। আমাদের দুজনের পায়ে মাথা রেখে কষমা চা ।”
আমি বিনা তর্কে ওর কথা মেনে নিলাম। রিমা আমার নুনু ছেরে দিতে আমি ওর পায়ের কাছে হাটুগেরে বসে ওর চটি পরা পায়ের অপর মাথা ঠেকালাম। নিজের ছোট বোন এর পায়ে মাথা ঠেকিয়ে প্রনাম করছি আমি, অথচ কেন জানিনা, আমার একটুও খারাপ লাগ্ছিল না। সত্যি বল্তে আমার বেশ ভালই লাগ্ছিল এভাবে ছোট বোনকে প্রনাম করতে। প্রায় ৫ মিনিট রিমার পায়ের ওপর মাথা রেখে পরে থাকলাম আমি । তারপর রিমা অর চটি পরা ডান পা আমার মাথার অপর রেখে আমাকে আশির্বাদ করলো । পা দিয়ে আমার মাথা সিমার দিকে ঠেলে বল্ল “এবার সিমাকে প্রনাম কর। আমি বোন এর দুপায়ের অপর চুম্বন করে ওকে ধন্যবাদ দিলাম। তারপর সিমার কাছে গিয়ে সিমার স্নিকার পরা পায়ের ওপর মাথা ঠেকিয়ে দিলাম। কেন জানিনা , খুব ভাল লাগছিল এভাবে সিমাকে প্রনাম করতে ।
মনে মনে কল্পনা করতে লাগলাম সিমা কোন স্বর্গের দেবী আর আমি দেবীর পায়ে মাথা রেখে প্রনাম করছি । একটু পরে রিমার মত সিমাও ওর জুতো পরা ডান পা আমার মাথার ওপর রেখে আমাকে আশির্বাদ করলো । আমি ওর স্নিকার এর অপর চুম্বন করে ওকে ধন্যবাদ দিলাম। আমি উঠে দেখি হাতে মোবাইল নিয়ে দারিয়ে সিমার দিকে চেয়ে রিমা হাসছে । আমাকে উঠতে দেখে সিমাকে রিমা বললো , ” সিগারেট খাওয়ার চেয়ে বাচ্চাটার ল্যাংটো হয়ে আমাদের পায়ে মাথা রেখে প্রনাম করার ভিডিও টাই বেশী ভাল হয়েছে। কি বলিস তুই?” ওরা দুজনে একে অপরকে জরিয়ে ধরে ধরে হাসতে লাগলো হো হো করে । তার মানে আমার প্যান্ট থেকে নুনু বার করে রেখে ওদের পায়ে মাথা রেখে প্রণাম করাটা ওরা ভিডিও করেছে ????

ajke bari firte ektu deri hoye galo. tai chinta korchilam barite gie ki bolbo. ektu voy o lagchilo. barite amar meye ankita ache oke ki bolbo. jai hok barir gate e knock kortei ankita darje dorja khullo dekhlam khub rege royeche ” ajoy ato deri korli , kata baje kheyal ache?”
Ami nijer kan kai biswas korte parchilam na. Amar meye amake nam dhore dakche ar tui bolche? Ami kichu bolte jabo. O gombhir golay bollo “onek rat hoyeche hat pa dhuye fresh hoye ne”. O abar amake tui bollo kintu kichu na bole badhdho cheler moto bathroom te chole gelam.
Aj amar wife lopa amar chele arka ke niye or mamarbari gache tai ami kichu ta nischinte chilam je lopa thakbe na tai let kore bari firle chechamachi boka boki korbe na. Kintu akhon amar meye amar sathe kamon jano katha bollo…ami aei sob bhabte laglam bathroom te giye. hotat meyer gola “ kire ajoy kato let korbi bathroom e ghumia porli naki?” ami bollam “ o ha sorry ami akhoni aschi”. Dhur amar ki hoyeche ? amar nijer meye amake kakhon theke tui tui kore jachche ami oke sorry bolchi. Ami mone mone thik o amake tui bole dakuk kintu ami oke sorry bolbo na. Jai hok kichu khoner modhay fresh hoye fresh hoye ghore alam.
Dining room te ase dekhi Ankita ekta chair er upor bose ache amake dekhei bollo “ Ajoy khabar ta ready kor” “ Ami obak hoye bollam, “ami ready korbo?..ar tui amake nam dhore dakchis kano? baba..” kothata sesh holo na tar agei sopate gale chor ase porlo. “tui m..” abar chor. “ Ja bolchi tai kor.” Ami kamon hotobhombo hoye gelam. Kichu khuner modhay kitchen theke khabar gulo niye ase table te sajie rakham. Ankita misti hese bollo “That’s like a good boy” eibar ami ekta chair tene khete boste jachchi. Ankita sorasori ekta pa chair er upor tule dilo. Ar bollo onno chair ene boste. Ami arek ta chair ene bose porlam. Ar dujone mile khete suru korlam. Dujhoner mukhai kono katha nai. Othocho protidin kato katha boli. Kalkao kato katha bolechi, ajkao kamon jano poribas ta thomthome. Amar ulto dike Ankita khachche ektu agai 2 to chor khayachi or hater tatei amar jamon kamon bhoy bhoy korchilo. O amar meye . or ei sobe 17 bochor purno holo ar ami baba hoye ekta 47 bochor boyesko manus bhoy pachchi. “Kire kono kotha bolchis na” Ankita hotat bole uthlo. “ Ki ar bolbo bol” Ami bollam. “Son Ajay tui aj theke amake tumi bole dakbi ar nam dhore na choto ma bole dakte paris.” Ami matha narlam “ Tui ki..,,ei sorry mane tumi ki amake sobar samne nam dhore dakbe” O bollo “ Ha.” Ami kamon chupte gelam. Ankita baparta bujhte parlo” Ki lojja korbe maya hoye babar nam dhore dakchi bole” Ami kichu bollam na matha nichu kore thaklam. “Thik ache apatoto sobar samne bolbo na tobe katha na sunle bolte hobe” Ami kichuta hap chere bachlam “ Katha sunbo, tui ja bolbi tai korbo” Ankita amar dike akbar upatmostok takia nilo. Jano amon bhav jano or digun thekeo basi boyeser purus ka aeibar hater putul kore nachabo.
Diner complete kore o ghore chole galo jaoar age bollo “ Bason gulo meje poriskar kore amar ghore chole aei.” Ami matha naralam. Jai hok hat mukh duye bason meje or ghorer gelam. Dakhi o donlay dol khache. Soddo 17 bochore poreche meyeta, besh lomba hoyeche. Pray 5’5” . forsha sundor mukhkhanay aj ek odvut anonder chhoya lege ache. Mathar dupash die ekrash ghono chul kadher ektu nich porjonto neme eseche. Or porone holde sobuj ghore porar churidars, paye nil ghore porar choti. Ei nitanto ghoroa poshakeo oke rajranir moto sundori lagchilo. Kano janina or ei opurbo soundorjer kache nijeke vishon khudro mone hochchilo amar.
Amake dekhe muchki haslo ankita. Ar boste bollo. Ami khate boste jabo “ Uhu okhane noy ekhane ese bos.” Bole angul die nicher dike ishara korlo. To ami donlay or pase boste gelam “ Toke ki ami donlay boste bollam. Matite boss amar payer kache” “ Matite ! ” Ami pray chitkar kore bollam. Jodio amar moner vitor ke jano sotti chaichilo or payer kache boste. “ Ha to ki hoyeche ete chitkar korar ki hoyeche. Jar sthan jekhane se to sekhanei bosbe. tor sthan amar payer kache. Ki thik to ?.”, bole ekta muchki hasi dilo ankita. Ami kichu bollam na chupti kore darie roilam. “Achcha ami toke nam dhore dakchi to.” Ami bollam “Ha.” “ Tahole tor samman amar theke boro na choto ? Tui boro hole toke nam dhore daktam? Thik kina?” Ami bollam” thik kintu..” “Kintu ki? tui amake tumi bolchis tai kono kotha na bole amar payer kache ese bos” Ami bhablam thik e to or kathay jukti ache atokhon dhore o to dekhiache amar sthan or niche ta payer kache giye bosi . tachara kano janina nijer ei sundori kishori meyer kache attosomorpon korte khub ichcha korchilo aj.. Ta ami matite bose porlam. Ghorer janla ta khola janla theke furfure dakhina haoa dichchilo. O donlay bose aste aste dulchilo. Ghore ekta halka nil alo jolchilo. Sob milie kamon mayabi mohachchonno poribesh. Or pa ta aste aste amar deher pass diye jatayat korchilo. Akta otbhut moho amake achchonno kore tulchilo aste aste. Ami or payer dike takalam. Kintu eki ata ki amar meyer pa? Ato din oke dekhchi sai choto theke kintu or pa to ato sundor dekhini , naki kheyal korini? Amar chokh theke or pa 5 inch moto dure royeche ki opurbo or pa. Ami ar parlam na amar mukh aste aste or payer kache chole galo ar or paye chumbon korlam. Ar songe songe hasir awaz “ Kire amar paye chumu kheli je? Akhon bujhte parchis tor jayga kothay ?” Uporer dike takia dekhi Ankita amar dike takie miti miti kore hasche. Amar songe songe hush fire elo. ami lojjay abar sore gelam. “ Ki holo besh to mon diye amar paye chumu khachilis sore geli kano ? tor jayga to amar payer tolatei re buddhu, ete lojja paoar ki ache ?” Amar mukh die songe songe sotti kothata berie elo “ tomar pa duto khub sundor. Chumu khete khub valo lagche, kintu lojja korche kano janina..” songe songe or choti pora dan pa die amar mukhe ekta lathi marlo o. “ dhur buddhu, baba der jayga to meye der payer tola tei. Baba hoye meyer paye chumu khete lojja kiser ?” o je pa die amar mukhe lathi merechilo seta dhore mukher opor nie elam ami. Or dan chotir tolay chumbon kore bollam “ sorry debi. “ “ aj to ami chara kau nai tahole kiser lojja tor? Erpor to sobar samne meyer seba korte hobe toke.Ami bujhte parlam na kar samne or seba korar kotha bolche o. . Ami abar or payer dike mukh baralam.
Ami jano sorgo pelam. Amar meyer pa ta jano duniar sobcheye durlov bostu, evabe or paye chumu khete laglam. Or chotir tola duto jiv die chete poriskar kore dilam prothome. tarpor. kukurer moto jiv diye amar meyer payer tola chatte thaklam. Besh kichukhon chatar por or payer buro angul ta mukhe pure dilam. “ Kire pa kamrachis kano. Dekh ki korechis ish pa ta lalay vorti kore diachis.” arek pa die sojore amar mukhe lathi mere amar nijer meye. “ Ja jol niye ase amar pa poriskar kore de” Ami jol niye alam. Or ba pa ta amar dan hater rekhe ba hat diye bhalo kore porishkar kore dilam. “ Ja ghore gia sue por. Kal tor songe onek kaj ache” .Emni tao ami onek tired chilam tai aschi bole ghore ase sue porlam.
Kintu ghore gia ghum alo na. Aj bari fire je je ghotona gulo amar mayar sathe sai gulo aste aste sob mone porte laglo ar monta jano kamon hoye galo. Lopader bari firte firte 7 din baki ache. Aei 7 din ami ar Ankita barite thakbo. kal sunday amar chuti ache barite thakbo ki hoy ka jane. O abar kal naki amar songe kaj korbe . Ki kaj korbe ka jane. Ekbaler modhay amar ar mayar somporko ato ta change hoye galo bhavte obak hoye jachchi. Tar opor ektu age ja kore alam ish amar mayar paye amar sob uttosamman lutie elam. Arpor to o amake kono samman e korbe na. Kukurer moto meyer pa chetechi. Oho tar modhay abar kal or bondhu Paromita porte asbe amar kache. or samne Jodi meye erokom kichu kore bose ? Ami ar vabte parchi na. Eaisob bhabte bhabte kakhon je ghumie porechi kheyal nei. Ghum vanglo Ankitar dake “ Kire katokhkhon ghumabi buddhu?”

Onno Sunday ami ektu deri kore uthi . Kintu aj deri kore othate kamon jano oporadh hochche . Ami taratari kore bollam “ o sorry deri hoye galo” . O bollo “taratari mukh dhuye fresh hoye 1 ta coffee niye ay to” .
Jai hok ami kichchuner modhaye coffee banie or jonno cup kore anchilam. “ Ato deri korchis kano” hotat or galar awaj te bhoy paoa cup ta hat theke fele dilam. “ Eta ki korli” amar gola sukie galo “ m…mane”
“ ki mane , gadha kothakar toke pituni dile hobe” Ankita bollo “na …ami ekhkhuni banie dichchi” ami bollam. “ Ar banate hobe na. Ek kaj kar ghor theke belt ta niya ay” amar bhoye gola sukie galo “ Tumi amake marbe” “ Nischoy tor ki mona hoy ami toke puroskar debo ei kajer jonno . mar na khele tui manus hobi na “ Ankita bollo. “ Kintu ami tor baba…..” Ankita chokh boro korate ami chup kore gelam.
“ Kire amake ante hobe naki tui niye ase amar hate dibi. Jodi amake uthte hoy tahole to bujhte parchis” Ami bhoy peye dour lagalam belt ta anar jonno enei or hate dilam. Deoar songe belt 2 gha porlo amar pither upor. Amar chokh theke jol baria elo. Ami 12-13 bochorer por ar karur kache mar khaini aj kina nijer meyer kache mar kachchi. Thik takhani calling bell beje uthlo.
Mone hoy Paromita aseche akhon ki hobe ami taratari nijer meyer pa jorie dhorlam “ Please amake akhon mero na.” O belt ta rekhe bollo “ Ja darja ta khule dia aay.” Ami darja ta khule dilam. dekhalam Paromita aseche. “ Jao sofay gia boso, ami aschi” bole amar ghore chole alam. Ami 5 minute pore boi khata ar notes niye poranor ghore alam dekhi ora 2 jon kono akta bapare khub hasahasi korche. Amake dekhe Paromita chup kore galo kintu amar meye pattai dilo na sei rakom hese jete thaklo.
“ Jano baba or colleger ek senior chele oke ragging korte esechilo oke o juto dia pitiache. Chele manei immature ar bod. protekke punishment dia manus korte hoy. Kothay ese oke pronam kore alap korbe ta na oke ragging korche.
Meye manei superior cheleder theke tai na baba” Ami dhok gillam ar bollam “ Thik.”
Paromita jano ektu sahos pelo “Na sir asole o amake khub disturb korchilo”
Ankita “ Thik korechis baba to bollo. Ar amader sanman cheleder theke basi se jai hok na kano” eai bole ami jekhane bostam sei chair e o ekta pa tule dilo. Ami darie chilam kamon jano ekta ososthite porlam ki korbo kichu bujhte parchilam na. Oke boltao parchilam je pa sorate ate o jodi rege jay ki korbo. O amar obostha bujhchilo ar miti miti kore haschilo. Paromita isara korlo oke pa sorate . Ankita bollo “ Baba amar pa ta na khub batha korche tai rakhlam tumi matite bose porabe” Amar matha ta hotat gorom hoye galo “ Ki..” “ Kal rater kotha mone ache” Ankita bollo. Amar kalke rater sai Ankitar payer kotha mone pore galo. Paromita attokhkhun obak hoye amader kotha sunchilo “ Ki kotha re Ankita” Ankita bollo “ Bolbo” Ami songe songe bollam “ Na na.” Ankita bolle sob jene jabe Paromita. Ki korbo bokar moto oder payer kache matite bose porlam. Paromita “ A ki korchen apni matite boschen kano?” Ankita “ Bosuk na je amader payer kache boste chay take boste de na” Ankita kothay ami aro loggay pore gelam. Paromita osostithe pore galo o darie porlo. “ Ki holo daria porli kano. Kichu hobe na bose por.” O aste aste kichuta itosthoto kore pa ta gutia bose porlo. “ Baba tumi boroncho Paromita dike boso” Ami bhablam thik bola jay na Ankita hoyto Paromitar samnai amake lathi marbe, Tar cheye borocho Paromita payer kache giye bosi tate at least amar gaye pa tulbe na borocho o lagggay pa gutia rekheche. Jai hok okhane bose ami porate suru korlam. Emnite ami pora bojhai takhan ora mon die sone amar o kono kheyal thake na. Tai Paromita pora bujhte bujhte katokhon pa gutie rakhbe ?
dan pa ta aste aste kakhon ektu samne eneche jani na otai or pa ta amar thik komorer upor laglo. songe songe amar nojor or payer dike porlo. Actually touch ta khub olpo chilo tai o kichu ter payni o mon dia pora bujhchilo. Kintu amar uttajonay gham jhorte thaklo. Ar porate porate or payer dike nojor porchilo. Ki sundor or pa duto.. Sundor forsha pa, khub halka ekta nail polish lagano. Or forsha sundor mukher motoi sundor or pa duto. Nijeke dhonno mone holo amar ato sundori ekta meyer payer kache boste pere.. Jehetu, ami niche bose matha nichu kore roychi o kichu bujhte parchilo na. Kichchun por or payer choya ami abar pelam. Aeibar o bujhte pereche o lojjay taratari pa soria niye amake pronam korte galo.

Ami taratari bollam na thak emni te ami kono mayar pronam ni na. Ami bollam “ Tumi jodi amake pronam karo tahole amakeo tomake pronam korte hoy. O chup kore galo. “Ki holo ki tor abar pronam karar dhum porlo kano hotat” Ankita bollo. “ Na pa lege gelo” bole chup kore abar pa gutia bose porlo. Ami abar porate suru korlam eaibar amar sotti ichcha korchilo or payer choya jeno abar pai. Tai aro kache giye ekdom or payer kache boslam. Kichchu khunner modhay ja hober tai holo or ba pa ta amar pither nicher dike touch korlo. Ar songe songe o pa gutia nilo. Kintu onno kichu react korlo na. Jai hok kichuta pora bujhia ebar oder kichu notes likhte dilam. Ami bolchilam ora likhchilo. Amar chok majhe majhe or payer dike jachchilo. Amar matha thik thak kaj korchilo na. Ami ba hate khata ta niye dan hat or payer onek kache niye gelam. Ektu porei hotat dan hate ekta sporso pelam. Dekhi dan hate kobjir ektu niche Paromitar payer buro angul ta sporso korche. Kintu eaibar ar o pa soralo na. Ami kono kichu jano hoyni amon bhav niye detection dite thaklam. Kintu lokhkho korlam kromos jano o pa ta amar hater dike rakhche. Akhon payer charte angul e amar hat spoors kore ache. Ami kichu korlam na, ami detection dite thaklam ora likhte thaklam. Ami eaibar bhavlam ekbar or dike takai dakhi o ki korche. Ami or dike takatei or chokachokhi hoye galo. Dakhi bhru kuchke amar dike takia ache ar amake bojhar chesta korche kintu pa sorrache na jamon chilo tamoni. Amon samay Ankitar kasir awaz. Ami chup kore jaoa te Ankita o lekha thamia amader dike takia che. Ar amader obostha dekheche. “Baba tumi ki tomar chatrir padoseba korcho?”
( to be continued )

babar 50 tomo jonmodine taake special kichu gift debe kotha diechilo 18 bochorer soddo college e otha trisha. kintu tar baba moloy swapneo vabte pareni gift ta ato sundor hobe ! taake nie trisha elo jono manob hin ek jongole. tar sundor mukhe hasi jhulie bollo happy birthday daddy. niche chokh bondho kore suye poro ebar , ar gift er jonne prostut hao. priyo meyer kothay tai korlo malay, jongoler matite suye porlo chokh bondho kore. hothat pete kiser jano ekta sporsho pelo moloy. meye tar pete pa rekheche ki ? vabar somoy pelo na malay. tar mukher oporo ekta kiser jano sporsho onuvob korlo se, takie ja dekhlo tar biswas hochchilo na. sotti e tar priyo meye trisha, jaake sarajibon mone mone debi gyane pujo kore eseche se, aj tar pet ar mukher opor juto pora pa rekhe darie ache ! trishar mukhe ki sundor ekta mon pagol kore deoa hasi. or porone sada -chhai top, ar kalor opore sada-chhai chhop wala mini skirt. paye chhai ankle sock ar sada sneaker. mukhe hasi jhulie babar matha ta dan pa die matir sathe sokto kore chepe dhorlo trisha. ” happy b’day daddy. kamon laglo b’day gift ?” jobabe anonde kono kotha berolo na moloy er mukh die. anonde chokhe jol ese geche tar. sudhu govir abege meyer juto pora dan pa ta du hatejorie dhore jutor tolay garho chumbon korlo moloy . trisha babar dike takie haslo ekbar, tarpor jutor tolata babar mukhe ghoste laglo aste aste.
trisha ebar babake ekta gacher tolay sute bollo. moloy tai korlo. babar mukher opor juto pora pa duto rekhe boslo trisha. moloy vokti vore meyer pa duto tipte laglo. tarpor gacher dale uthe darie babar mukher opor juto pora pa die lafie namte laglo trisha, barbar. jontrona sotteo meyer proti voktite vore uthlo moloy er mon. tokhoni trishar bandhobi tulika ese daralo. bandhobir samne babar buke pa rekhe darie victory pose dilo trisha.
tulika moloyke or payer kache sute bole. moloy sute or peter opor kalo juto pora ba pa rekhe prothome victoy pose day tulika. tarpor moloy er matha ta sokto matir opor chepe dhore. moloy er mukh ta jutor tola die ghoste thake. meyederproto voktite mon vore othe moloy er. jiv ber kore provu tulikar pobitro jutor tola chatte thake se.
moloy er haat duto gacher daaler sathe bedhe dilo tar meye trisha. meye ar tar bandhobir payer kache haugere bose thaklo moloy hatbadha obosthay. or badike tulika ar dandike trisha oke nijeder payer kache osohay obosthay dekhe haste laglo. tarpor tar pet ar buke lathi marte laglo tulika, ar dui payer songjogsthole tar meye trisha. uffff, ki jontrona !!!!
gacher sathe hat badha babar mukher dan dike gie daray trisha. babar mukhe lathi marte khub ichcha korche tar. tai deri na kore dan pa ta tole se, jutor tola die babar mukher opor joto jore somvob lathi mare se. booom! sobde gota jongol ta jano kepe othe. kintu ekta lathi mere ki mon vore. tar opor juto pora pa die nijer babar mukhe lathi mara, er mojai alada. babake trisha bole ami jotokhon tomar mukhe lathi marbo, amar uddeshe debi bondonar montro bolte thako. moloy tai kore. nijer meyer uddeshe debi bondonar montro porte thake moloy. sotti, trisha to debi e, ki sundor juto pora pa die babar mukhe hasi mukhe lathi marche ! babar mukhe eker por ek lathi mere chole trisha, ar baba tar uddeshe debi bondonar montro pore chole.
15 minute babar mukhe lathi mere thame trisha. ebar tulika egie ase moloy er mukhe lathi marar jonne. babar boyeshi purush er mukhe lathi marte darun lage tar. othocho tar amon durvaggo ! tar baba baire thake, tai regular se sudhu nijer dadar mukhe lathi marte pare. moloy er mukhe eker por ek lathi mere boyosko purusher mukhe lathi marar ichcha puron korte thake tulika. jontronay katrate thake moloy. ete utsaho aro bare tulikar, aro jore jore se moloy er mukhe lathi marte thake. trishar nirdeshe moloy tulikar uddesheo debi bondonar montro bolte lage.
babar kadher opor uthe daray ebar trisha. juto pora padutor majhe babar matha ta sokto kore chepe dhore.
trishar moto tulikao ebar moloy er dukadhe pa rekhe daray. tarpor dujone tar dukadhe juto pora dan pa rekhe victory pose day. trisha babar galer opor lathi mere jiggasha kore “kamon lagche amader lathi khete ?” meyer jutor opor chumbon kore moloy moner kothatai bole, “darun lagche provu. chele hoye jonme mukhe meyeder lathi khaoa ki kom souvagger kotha?” nijer kothar sottota proman korte tar kadher opor rakha trisha ar tulikar juto pora dan payer opor pala kore chumu khete thake moloy. taake pagoler moto nijeder jutoy chumu khete dekhe haste thake tar dui provu.
snigdha ese ei somoy tar dui bandhobir sathe jog day. tulika nijer kalo sneaker pora ba pa ta moloy er kadher opor rakhe. trisha nijer sada sneaker pora ba pa die babar chokchoke teko matha ta chepe dhore, taaker opor nijer jutor tola ghoste thake. ar snigdha ese samne theke moloy er mukhe eker por ek lathi marte thake. ufff, ki anondo je paoa jay cheleder mukhe lathi mere. snigdha eker por ek lathi marte thake moloy er mukhe.
dupash theke nijeder juto pora dan pa die moloy er mukhta chepe dhore trisha ar tulika. moloy er mone hote thake tar mukh ta bujhi oder payer chape chepta hoye oder jutor tolay lege jabe.
eteo jontrona sesh hoyna moloy er. snigdha samne theke ese or mukher opor nijer juto pora dan pa ta rakhe. moloy er mukher sorbotro ghoste thake nijer jutor tola. moloy er besh valo lagte thake meye ar tar 2 bandhobir payer tolay evabe ottacharito hote. jiv ta se jotota somvob bar kore day. tar jiver opor nijer pobitro jutor tola ghose poriskar korte thake snigdha.
erpor samne theke moloy er mukher opor eker por ek lathi marte thake snigdha. boom, boom boom, boom, lathi marar awaj gulo por por hoye chole, kono biroti chharai. moloy er naak fete rokto porte thake. tobu thamena snigdha. kano thamte jabe se ? chele der mukhe lathi marte tar boddo valo lage je ! tar lathi kheye kono teko buro jodi moreo jay tate kar ki jay ase ? lathi mara chalie jay snigdha. se thamle tulika ese samne theke lathi marte thake moloy er mukhe. tulikar lathi mara sesh hole trisha babar samne ese daray. rokte vese jaoa babar mukhe eker por ek lathi marte thake sada sneaker pora pa die. ektu pore trishar juto pora dan pa babar naker opor sojore achre porle ki jano vangar sobdo sona jay. sei songe tibro artonad kore othe moloy. nijer meyer lathi kheye somvoboto nak ta venge koek tukro hoye geche tar. kator konthe meyeke onurodh kore moloy, “daya koro amar opore provu. amar nakta venge geche. boro jontrona hochche. please ar merona akhon. “chup kor kutta” bole babar mukhe lathi mara chalie jay trisha, bisesh kore babar vanga naktar opor jore jore lathi marte thake se.
ektu pore seshbar babar vanga naker opor lathi mere thame trisha. babar mukher samne juto pora pa ta dhore bole, “tor nongra rokto lege amar pobitro juto nongra hoye geche. chete poriskar kore de. oi obosthate vanga nak nie meyer jutor tola jiv die chete poriskar korte thake. tar 3 provu tar durdosha dekhe hasite fete pore.
erpor babar badha haat khule dilo trisha, babake hukum korlo 4 haat paye kukurer moto darate. sotti to, se to meyeder kache posha kukurer cheye besi kichu na. rokte vasa mukh ar vanga nak nie nijer meyer adesh palon korlo moloy. se 4 hat paye daratei meye tar pither opor uthe daralo. tar chokchoke teko mathar opor koekta lathi marlo dan pa die. tarpor babar taake nijer jutor tolata ghoste laglo jeta ektu agei tar baba chete poriskar kore dieche. tulika ar snigdha dupash theke tar buker dupashe lathi marte laglo. jontronay chotfot korte laglo moloy . tobe e amon jontron jate deho kosto peleo mon pay govir sukh.
trisha ebar pa bodle juto pora ba pa ta babar mathar opore rekhe babar chokchoke taake jutor tolata ghoste laglo. snigdha ar tulika moloy er buker dupashe lathi mara chalie jete laglo.
pray du ghonta moloy er opor ottachar kore thamlo or 3 provu. dehe jotoi byatha laguk, moloy er mon tokhon tar 3 provur proti vokti te poripurno. oder 3 joner juto pora paye matha thekie dhonnobad dilo moloy. ora 3 jon e moloy er chokchoke teko mathar opor juto pora pa rekhe oke asirbad korlo.

gota school obak hoye dekhchilo amake. ami upur hoye suye oisheer juto pora payer opr chumu khachchilam. oishee besh enjoy korchilo bujhte parchilam. pa soranor kono chesta o korchilo na. or sada sneaker duto ami chumbone chumbone vorie tulechilam. o darie thakay or jutor tolay chumbon korte parchilam na. or jutor opor duto chumbon korchilam pagoler moto. amar jiv byasto chilo or jutor oporta notuner moto chokchoke kore tulte. gota school nischup hoye dekhchilo amader. hothat anindita madam er golar awaj nistobdhota venge churmar kore dilo, ‘ oh god, what are you doing ?’
ami madam er dike takalam ekbar. kintu kono odrisso shokti jano amake uttor dite dilo na. amar thot jora abar byasto hoye gelo oisheer juto duto chumbone vorie tulte. oishee ebar juto pora dan pa tule amar matha ta thele or pa theke dure sorie dite laglo. ami pagoler moto or ba jutoy chumbon korte korte kator konthe bollam, ‘ please madam, amake tomar jutoy chumbon korte dao. amar sthan tomar payer tolay, please tomar juto amake chete poriskar korte dao. daya koro amar opore provu. please. ‘ anindita madam pash theke chokh kopale tule bollen ‘ tor ki hoyeche rahul ? ‘ tarpor baki chele der dike cheye bollen ,’ oke amar room e dhore nie ay. ‘ baki chele ra amake tene oishee payer opor theke tene tule fele changdola kore tule nie chollo madam er ghore. ami tokhono kator konthe onurodh kore cholechilam sobaike. ‘ please, tomra erokom korona. oishee amar debi, ami or vokto. amake or juto jiv die chete poriskar korte dao please.’ ora sunlo na , amake madam er ghorer vetore nie gie namalo. ora nijeder modhdhe hasahasi kora suru korechilo amar achorone. amaro jano odvut nesha ta kete gelo aste aste. e ki korchilam ami atokhon ?? gota schoolo er samne. ebar ami school e mukh dekhabo ki kore ??
amake kole kore baki chelera anindita madam er ghorer samne namie dilo. Madam gomvir golay bollen “ tomra sobai class e chole jao. “ ami rahul er songe eka kotha bolte chai.
Ora sobai chole gelo. Madam er ghore akhon sudhu madam ar ami. Madam er boyish 25 er besi hobe na. sundori forsha madam er porone salwar kamij, paye kalo slip in shoe. Amar kano jani na mathar modhdhe abar sei ichcha ta joro hote suru korlo. Ato sundori madam, ar ami ekta opodartho chele. Madam er samne darie thakar kono odhikar ki ache amar ? amar uchit hatugere madam er samne bosa. Nijer matha ta madam er payer opor namie deoa. Chumbone chumbone vorie deoa madam er juto duto.
Chomok vablo madam er golar awaje. Madam sorasori amar chokher dike takie kotha bolche. Madam er golar awaj gomvir, kintu shanto.
“ tor ki hoyeche rahul? Evabe gota school er samne oisheer juto pora paye kiss korchili kano? Oke provu bolei ba dakchili kano ?” madam er golar swore bismoyer sathe kichuta duschintar chhoya pelam.
Madam er swavabik achorone nesha ta totokhone onekta kete geche. Ami matha nichu kore bollam, “ janina madam, amar ki hoyechilo. Kano janina mone hochchilo ami khudro opodartho ekta chele. Oishee sundori, brilliant meye. Or payer tolai amar jonne sothik sthan.” Kothata bollam bote, kintu madam er chokher dike takanor sahosh hochchilo na. “
Madam bollen, “ tui ki nesha korechis ? sotti bolbi .. sustho obosthay erokom mone haoar to kono karon nei. Ar oisheer theke to tui onek valo student “ ami dupashe matha nere janalam nesha korini. Chokh tule abar madam er reaction dekhte laglam. “ madam kichukhon gomvir mukhe vablen. Tarpor gomvir mukhe bollen, janina kano erokom holo tor. Akhon soja baric hole ja. 1 week barite rest ne. school e aste hobena. Baireo kothao beros na. ermodhdhe thik hoye jabe asha kori. Tarporeo erokom ichcha mathay ele amake janas. Toke psychiatrist er kache nie jabo tahole. Anyway, voy paoar kichu nei tor. Ar class e keu e nie kharap kichu bolle amake janas.” Ami nichu swore “thank you madam “ bole berie elam . class e sobar samne bag nite jaoar sahosh holo na. soja barir uddeshe hata dilam. Mathay tokhon ekraash chinta ghurchilo. E ki holo amar ? kano amon korlam? Ami thik hoye jabo to? Sobar samne school e class korbo kivabe erpor?

Barir kajer lok thik kora hochchilo. Amar flat er drawing room e ami, amar wife ipsita ar kajer meye kusum(boyos 18 yrs, roga, lamba, sasthabati) er sange kotha hochche. Amar mone sudhu ektai bhoi jodi bau kotha’ta bole fele. Kajer meye chada cholei jachchilo. Ami office theke fire sob kaj kori ar bou ranna ta kore. Kintu or party ar bondhu der jonnyo seta samle uthte parchilo na. Ekta kajer meye rakha mushkil kichu na, karon ami bhaloi maine pai ek boro office’e kaj kore. Kintu mushkil onno jaigai.

Biyer por thekei amar bou amake dominate kore. Rina(amar meye,16 bochor boyos) barite thakle tobu kichu kom thake. Ekhon Rina mamar badite tai aro sashan bedeche. Sedin or bondhuder samne ja holo tate amar matha kata jacchche. Kichu din thekei amar bou ekta party’r kotha bolchilo. Ami bhablam e ar emon ki, kintu pore sab sune bhoi rakta jal hoye gelo. Ota naki langto chele sundari meye party. Ora nijeder husband ke niye giye sab jamakapor khule dei ar chele’der diye sab kaj korai.

Sune ami kichutei raji holam na. O tai shune rege gelo ar samasta bondhu der rate bela daklo. Ami chokhe andhakar dekhlam. Bhebechilam o hoyto thatta korche, kintu party te jokhon gopa amar kan e kan e bollo”apni kintu jama kapod chadai aschen porer mangalbar” takhan ami bhebecheka kheye gelam.

Erpor thekei dubhog badte shuru korlo. Porer din sakal e ghum theke uthe dekhi ami langto. Char dike khuje dekhi kothai kichu porar nei. Upai nei dekhe langto hoye niche namlam. Matha gorom hoye gechilo. Khub jor kichu bolte giei dekhi drawing room e kara jeno kotha bolche. Kache giye uki mere dekhi amar shali rupa eseche. Oder katha shunbar chesta korlam. Rupa chapa golai bolllo,” etai thik korecho. Koekdin langto thaklei sab mejaj kome jabe. Tobe amake ekbar dekhte debe na?” Ipsita”amar borta khub lajuk. Age kichudin adjust kore nik tarpor sarakhon e langto kore rakhbo. Jokhon khusi dekhe nibi.” Dujone khub haste laglo.”Rina samneo? Emaaaa…” Rupa bollo. Sune amar kan lal hoye gelo. Konorakame rag chepe bathroom e giye gamcha pore nilam.

Tar pore Rupa chole jabar par, Ipsita eshe amai dekhe bollo, “ki rag korecho? Tomai na langto hoye darun dekhai. Please, gamcha ta khule dao” Or mishti hasi te bhule ami gamcha khule dilam. Thik tokhoni Rupa’r gola sunte pelam, ” Ema, Langto chele.” Chomke dekhi Ipsitar pechone dariye Rupa hasche ar Ipsita dat diye thot kamde hasche. Ami lajjai duhat diye samne ta adal korlam. Ipsita oka thele ber kore bollo, ” Thik ache ajker moto tui ja. Khub lajja peye geche.” O Ghare dhuke amar kache elo. Amar chokher jal muche ekta kiss kore bollo. “Dekho porer mangalbar partite eto gulo meye tomake langto dekhbe. Tai eta korlam. Oto lajja peo na. Ebhabe thakte thakte obhesh hoye jabe. Ar ha, Rupa ke bolechi o kauke bolbe na. Tobe partite hoyto o koekata bandhobike niye aste pare. Darun bepar hobe, taina. Etogulo meyer samne jakhan tomar pant khubo tokhon ja moja hobe na. Bhabchi Rina ke ebar ta bolbo kina. Oro to jana uchit.” Sesher katha ta shune bishon ghabde gelam. Ipsitar mukh dekhe mone holo hoito ektu doya holo. “Thik ache, oke ete jodabo na. Tobe aj theke barite puro langto. Kemon?” Ami ar ki bolbo, sudhu ektai prosno chilo.”Jodi keu eshe pore,tahole?” “Darja kholbar samay gown pore nebe, ar ha ami jakhan bell bajabo puro langto hoye khulbe.” Erpor kichu na bole o chole gelo.

Ami langto obostei mejhe te bose porlam. Eki holo. Ami eto boro officer kina seshe barite langto hoye thakbo. Tabe ektai subidhe je amader flat ta onno bari theke dekha jain na, sudhu balcony theke Mrs. chatterjee’r flat ta samne.
Rina ar kajer meye Kusum amake langto obostha’e dekhbe vebe, kapal theke gham beriye gelo. Takhani mone porlo Rupa samne ektu agei to amar ijjat gelo. Tao amar nunku ta

choto hoye chilo, bhalo kore dekhte paini. Ebar theke amake bou amake langto kore rakhle to advantage nebei. Is or samne mukh dekhabo kemon kore. O amake dada bole dake,

kintu er por langto thakle ki ar patta debe. Tokhon to langto hoye sara bari ghurte hobe. Or samne nunku khada hobei, tahole to jetuku adal setuku o thakbe na. Ami thik korlam

langto thakleo kichutei uttejito hobo na. Ontoto nunku ta gutiye thakleo kichuta kom langto lagbe. Ar nunku charpashe ghana chul, tate jatatuku manrakkha hoi. Ami hoyto prothom

jamaibabu je sali’r samne ekdom nangto hoye thakte baddho.

Samne aynate chokh porte langto obostha’y nijeke dekhte pelam. Dekhi already nunku ta khada hoye jhulche. Mone holo jeno peyaz’er moto sab samman eke eke keo chariye

niche, amar ga theke. Amar chokhe jal ese gelo.

“Ki Holo, tokhon theke bose acho. Tumi langto thakbe bole ki, amar jama kapod kacha bando thakbe. Ei obosthay giye sab kaj koro.” Bou dekhi du hat bhaj kore helan die dariye

ache, ar kathata bole jibh kete muchki hasche. Kichudin agei promotion peye oke je saree’ta diechi, setai pore ache. Emon bhabe pora je bishes kichui dekha jache na. Amar kemon

jeno aro langto laglo nijeke. Bou holeo amar theke o 5-6 bochor choto.

“Please, amake kichu porte dao,” ami bollam, “tumi ki amake ektu bhalobasho na” prai kede phellam ami.

“Thik ache, edike eso” bou’er kathai uthe kache gelam. Dadatei mone holo, nunku jeno haoa’e dulche. Bujhte parlam, nunku khara holeo, pant pari bole bujhte pari na. Ekhon kichu

nei bole, beshi laphache. Mone pore gelo meyera bra keno pore seta’o jeno eki karon’er jonno sunechilam.

Amar mukhta aynar dike ghuriye diye bollo,”Dekho to ki sundar lagche tomai. Bacha’der moto.” Bole achol diye amar nunku ta’r opor halka kore buliye diye bollo.”Dekho eita to ar

private noi. Aj ami ar Bon dekheche. kalke aro koekjon meye dekhbe. Tumi langto thakle to gorom thekeo aram. Nunku tao free thakbe, ar ami vabchi ekta jhunjhuni ba kichu lagiye

debo. Tumi ghure bedale bes awaz hobe. Badite ekta langto chele ghurche bole bojha jabe. Internet’e dekhlam, cheleder nangto kore rakhle naki nunku te blood circulation’o bhalo

hoi. Dekho, ota kirokom lamba hoye geche. Jeno khil khil kore hasche. Bolche, ei badite amar mukti sabar kache. Ami ebhabei tomake dekhte chai, ar eta emon kichu kothin noi.

Keu to jante parche na. Onno flat theke kichu dekha jai na. Koekdin pare bhulei jabe je kokhono jamakapod porte. Bor to sab meyeri hoi, langto officer bor ar kota meye pai.”

“Kintu Mrs. Chatterji ar onar meye Sharmistha to sab dekhe phelbe. Sharmistha ke ami parai, protyek rabibar. Or samne ami….” bole amar gala buje elo.

“Sharmistha ele gown pore nio ar dekho parti’te to or boyosi meyerao thakte pare. Ekta rehearsal hoye gele, bhaloi to hobe.” Bou mishti kore heshe uthlo.

Shune amar pa kapte laglo. Bou ador kore amake jodiye dhorlo. Or molayam kapod ar ami puro langto. Oke ektu ador korbo, bole kapod’e tan martei o dure sore giye bollo,

“ekdom na, langto tumi thakbe, ami na. Ekhon theke kapod para meye dekhte practise koro. Parti’te tahole oita santo thakbe.” bole amar nunku’r dike ishara korlo.”Partite meyera

sab salwar kameez pore asbe, karon saree te pet ar pith beriye thakei. Ar “meyeder samne chelera ulango” ei feelings ta anar janno saree bemanan. Tai bujhtei parcho….”

Opomane amar sharir lal hoye uthlo. Ami kichu bolar agei bollo, “Ar sono kal Kusum ke ekbar dekechi, mase koto nebe ektu dar korte hobe. Besi kaj to tumi ulango hoyei korbe.

Ta jadi o besi cheye boshe, tahole amader ei bepar ta bolbo. Tumi langto hoye thakle o ektu enjoy korbe ar maine’ hoito ektu kam korte pare. Ami bollei gown khule puro langto

hoye or samne dadabe bujhle. Tomar langto thaka’ta boro bepar noi kintu kajer lok paoa onek important.”

Takhani Phone beje uthlo.

Bou dhortei bujhte parlam or party’r kono bondhu. Ami kan pete oder katha sunte laglam.

“Are ha. Oke orokom’e rekhechi. Prothom to tai lajja’ta jaini. Ei samai tui dekhe ja. Bes, taja ache. Sabe, ijjat geche to….” bole khil khil kore heshe uthlo.Opar thekeo hasir awaz pelam.

Amar matha kaj korchilo na. “Ha, bon’o dekheche. Tui’o try kor. Dorkar porle borke niye tor badite ekta demo diye debo. Tor meyeke ektu sariye dis…..Ki bolli…..Meyer samnei,” bole hi hi kore heshe uthlo. “Ema, tor meye samnei bose ache. sab bujhe geche, monehoi. Ektu dibi naki kakur sange katha bolbe…..” bole hashi ar thame na.

E ki holo, ami bhabchilam. Dekhi bau phone niei amar dike ghure matha theke pa, ekbar chokh buliye bollo, “Thiki bolechis. Sabe adal ta geche to. Oi gaiga gulo ektu dark hoye ache, ektu sumona ke parle pathiye dis. Sunechilam, o beautician course korche, bolbi bhalo kaj ache. Bhalo kore korle, ekta exclusive party ticket’o pabe.” Ektu hasashasir por bollo,”Hmm, tui oder kor ar ami Mrs. Chatterjee ke invitation ta die ashi. Uni opposite flat’e to, tai ektu osubidhe. Parti’r age dekhe na phele. Bikele janla dorjar jonno cutain kinte jabo…..ha, ligh kinbo jate puro dekha na geleo bojha jabe bor langto. ……Grand finale, te package open korbo…..”

Ami sunchi ar rage amar ga jale jache. Sunlam ebar ektu serious hoye bolche”…parbe na mane. Partei habe. Asole dekh, nangto korlei to holo na, training’o dite habe. Na hole eto gulo meyer samne langto hoye pressure na nite parle amar samman jabe. Emon training debo je 100 ta meyer samne langto thakleo jeno nijeke controll’e rakhte pare. Ektu bhul hoye gelo. Kichudin agei nangto kore dile bhalo hoto. Hate time eto kom. Amar samnei lajja kateni, ar etogulo meyer samne…. Tui’o majhe majhe chole ai. Eka hate koto samlabo. Dorkar hole meyer samneo…..Ha, ekhon keo ele gown pore thakche, thik korini? ektu kichu pore thakle langto korar moja ta thakbe”

“ki bolli current condition?….ummm,dadiye ache” bole haste haste phone ta amar dike egiye bollo”katha bolo”. Amar heart er dhukpuk bere gelo. Kono rokome phone ta niye kichu bolar agei sunlam, odike Gopa gaiche, ” Ye kya hua, kaise hua, sabke age nanga hua….”tarpor hasite fete porlo. “Bhoi paben na, dada. Meye onno ghore. Tobe ekta katha, loke deuliya hole sab harai, apni to sab thaktei sab haralen. Dekhben, oi jaiga ta kintu ar private noi, tai ekdom hat deoa noi, kemon? Mongolbar subho unmochon habe, tar age jotota abagunthan ache….” Amar ebar bishon bhoi korte laglo. Antata, meyer boyshi, meyeder kache samman rakhte habe. Kono rakame bollam “hmmm.” “Apni amader chokhe jemon chilen temon’i thakben. Sudhu puropuri langto thakben. Amader gram’e 10-12 bochorer chele gulo langto thakto dekhechi. Oi jaygai apnake bhabchi, ar gaye kata diye uthche. Dekhi, er majhe ekbar apnake chakkush dekhe asbo. Janen to, amake abar party ta organize korte hoche. Apnar moton to ar langto thekle amar cholbe na.” Haste thaklo gopa, opomane ami matite mishe jachi.” Ki rag holo naki cheler? Ekhon’i ei. Erpor to apnar baditei apnar pant tene namiye debo.Tokhon? Osab privacy amader jonno, bujhlen mashai. ” Tarpor ektu naram kore bollo, ” Koekdin pare jachi apnar bari. Ei kota din adal ta enjoy karun. Tarpor…..” bole phone kete dilo.
Rage, opomane amar ga jale jachche. Ami sundari bou’er samne langto hoye dadiye, ar bou ar or bondhu amar nunku niye khullam khulla discussion korche. Kintu ektu pare ekta

upalabdhi holo. Ekta langto chele er besi ar ki expect korte pare. Amar chokh jale bhore gelo. Bou mone hoi dekhte peyechilo. “Edike eso” sunte peye oi obosthay bou’er samne

giye dadalam. “Chokh bondo koro” bole o amar mukh ta du hate dhore or buker opor namiye anlo. Or cleavage theke opurba ekta sugandho pelam. Ami jantam o oi jaigatai ekta

special scent dai. Samasta rag dukkha opoman, bhule gelam. Ekta sargasukh holo. Mone holo etai jadi niyati hoi tahole mene neoai bhalo. Ar bou to boleche je baccha meyeder

samne langto korbe na. Khub ichche holo chokh khule ekbar bou’er stan ta dekhi, kintu ami oke osomman korte chaina. “Eto bhitu keno tumi. Choto belai to langtoi thakte, abar

langto hoye thakbe. Eto depressed thakle kintu amake onno upay bhabte habe.” Bou amar mukhta tule dilo. “Ar sono Gopa bolchilo nunku tar opor ektu makhan lagiye rakhte,

tahole skin ta narom thakbe. Majhe majhe rannaghar e giye makhan lagiye asbe, kemon. Ar ha, kono rokom bhabei masterbation korbe na. Ami chai nunku khada thakuk sabsamai,

kintu ekdom ras berobe na. Ete meyera sammanito bodh korbe. Gutiye thakleo bhalo. Ar sono Sumona to aschei, oke diye nunku ta bhalo kore make-up kore debo. Ami jakhan or

sange katha bolbo, tumi langto hoye chup kore dariye thakbe. Nunku niye ekta kathao bolbe na. Nunku ta ektu presentable korte habe. Bhabchi tomar goph ta niye ki korbo?”

Ami abak hoye or katha sunchilam. Amar nijer bou ebhabe katha bolche. Tobe ar ashanti kore labh nei. Jama kapod to fire paoa jabei na, ekhon keu ele je gown porte parchi setao

jabe. Or sesher kothata sune ektu ghabre gelam. Goph to pourusher chinho. Je lok badite langto hoye ghure bedai, take ar goph manai na.

“Na goph ta thak, bes handsome lagche. Mone hoche, jeno ki ekta missing.” Bou bollo. Balai bahullo, sei jinis ta je jama kapod seta ar na bolleo chole. Goph joda thakle amake

niye partite aro thatta tamasha habe vebe aro bhoi peye gelam.

“Please, goph ta kat’te…” Hotat calling bell beje uthlo.

“Bodhoi Sumona esche. Jao, langto hoyei darja ta kholo.” Bou’er kothai ami bishon ghabre giye or paye porlam. “Thik ache, gown ta pore niye kholo. Kintu, bokami korcho. Ektu

pore to sai ulango hotei habe.”

Ami uthe kono rakame gown chapiye, Dorjate chokh rakhlam. Dekhi kajer meye esche.

“Dadababu, eto deri kore darja kholo naki. Amader ki kaj nei.” Bole kichu na sunei, prai dhakka mere bhetore dhuke gelo. Ami bhablam du-char kotha sunie debo. Kintu mone holo

ei meyetar’ samnei hoyto langto thakte habe, tai ragiye labh nei. Nijer baditei erokom ekdin obostha hobe, ke vebechilo. Ekta dirghosash beriye elo. Hall e eshe dekhi, Meyeta

sophai boshe bou’er sange kotha bolche. Mone holo amar theke jeno or besi chole ei barite.

“Suncho, kusum to bes dor hakache. Eto taka dite parbo na. Tumi tahole….” Bouer katha sesh hawar agei, Kusum amar dike phire bollo, ” Acha babu apni rojgar koren. Apni’e

bolun, kirokom vabe jinis er dam badche. Ami 1,000 taka to kam e bolechi.” Ektu khocha chilo kothata’te. Bou’er mukh ta dekhlam gambhir hoye gelo. Jetuku asha chilo manage

korar setao gelo.

” Tumi ektu oghore jao to. Ami or sange ektu katha bole ni.” Ami sunei bujhlam arekta meye’r samneo amar samman gelo. ” Please, sono amar mone hoi….” amake thamiye bou

bollo “Ami bar bar repeat korbo na. Get inside. ”

Ami mukh nichu kore bhetore dhuke gelam. Ar asha nei. Gown ta khule langto hoye ready holam. Oghore ektu parei Kusum er Ho Ho kore hashir awaz sunte pelam. Ei bhabe ektu

parei dak porbe or samne beronor jonno. Mone mone vablam, emon din’o o kopale chilo. Kajer loker samne langto hoye ghurte habe. Meyeta emnitei kom boyosi, Rina’r theke

ektu boro ar sundari. Kushoyechilo, ar ei du dine sabar samnei langto hote habe monehoi.

“Eghore esho” bou dak dilo. Ami vablam langto jabo na gown pore kichu to bollo na. Ami bolte gelam,”Langto hoye?” kintu nijeke samle nilam. Ete aro besi hasahasi hobe. Tar cheye na jigesh kore jawai bhalo. Esob vabar samai mone chilo na. Takiye dekhi nunku ta shakta lomba hoye geche. Puro glans ta beriye poreche. Alote reflection hoche. Chi, chi evabe karo samne jawa jai.

Hotat ekta jharer moton holo, parda thele bou bhetor’e dhuklo. “Oma, ekebare langto hoye ready acho dekhchi. Kintu nunku ta eto boro keno. Satti, tomake niye ar para jabe na. Thik ache, ajke or samne ar langto korbo na. Oke kal theke aste bolchi. O boleche, tumi langto hoye thakle kono taka nebe na. Ki exciting bepar na, free te kajer lok vaba jai. Ki bollo jano, Didi apni eto mahan kaj korchen ar ami eituku kaj kore taka nebo? Purush manushke je meye ei vabe langto rakhte pare, seto ar pachta meyer moto noi. Tobe o sarta dieche, je ekdom kapod para jabe na. Tomake langto dekhlei or taka usul hoye jabe. Gaye jeno ekta suto parjanta na thake. Bhaloi holo bolo! Party te or moton boyoshi meye’ra thakbe. Or samne tumi free hoye gele, ar lajja pabe na. Or ekta 2 bochorer choto bon’o ache. Niye asbe bolchilo. Tobe ami raji hoini. Ektu rekhe rekhe sabai’ke dekhano bhalo. Taka nebe na bole ki matha kine nieche? Jata take to ar nangto bor dekhano jai na. Nehat o kajer meye, nahole ektu qualified na hole ei sab bepar’gulo thik enjoy kora jai na.” bole thot kamde ekbar amar matha theke pa puro’ta dekhe nilo. “Tahole officer babu, langto hoye berote ready to?”

“Sono, ami ar parchi na. Ebhave sabar samne….” Amar kotha atke gelo. O khap kare amar sakta nunku ta dhore bollo, “Onek natok korecho. Chalo to, ekhoni sab dekhiye debo Kusum ke. Oghore ekhono o bose ache. Ekdin deri kore labh nei. Er ekta faisla hawa dorkar. ”

Or sorire je eto sakti ke janto. Chokher nimeshe nunku dhore tante tante pasher ghore niye gelo. Ami lajja’te chokh bondho kore phellam. Kintu eki, anekhan poreo karo awaz pelam na dekhe chokh khule dekhi, ghare bou chara keo nei. “Kemon dilam, Of tumi ekta kando korle bote. Kusum chole geche. Kal sakal theke asbe. Tobe ebar bojha gelo, loker samne langto hoye berote kemon lage?” bole haste laglo .
Ami mone mone haf chede bachlam. Oi kota minute, chokh bondo kore je kibave katchilo seta jara kokhono meyeder samne langto thekecho, tarai bujhbe. Ekbar kono achena meyer samne langto hole ar sara jibon shirt pant porleo tumi tar kache langtoi thakbe. Mone holo jeno chardik shanta hoye geche, ekta jhar othar age. Ja kichu niye garba chilo meyeder samne jale gelo. Mahabharat’e Draupadi’r jemon bastraharan hoyechilo amar’o jeno eki obostha holo. Ipsita dekhi sofate boshe payer opor pa tule muchki muchki hasche. Hotat amar mone holo, Kusum jawar somoi darja’ta to bondho koreni. Je kono muhurte keu chole aste pare. Mone hotei ami langto obosthatei daud lagalam. Pechon theke sunlam bou jore heshe uthlo. Giye dekhi dorja’ta puro khola. Ami ebar chintai porlam, dorja’ta odike flat gulo theke dekha jai. Evabe ulango hoye gele keo na keo dekhe phelbei. Dekhi ekta gamcha, jhulche dewale. Bacha gelo, vebe jei ota nite gelam, sunlam Bou dakche, “Amake gamcha ta dao to bishon gorom lagche.” Ami chat kore gamcha pore darja diye abar gamcha khule bou’er kache elam. “Hmm. Gamchata dite deri holo keno? Dorjata kintu langto hoyei khulte hote pare erokom cholle.” Ami bolte gelam, “Dekho, gown to chilo na, ar tumi to bolechile….” O hat tule amake thamiye bollo, “Ekhon theke instruction ta situation to sitation change korbe. Jekono eventuality’r jonno langto thakte hote pare. Party’te reception’e tomake hoito langto hoye sobaike welcome korte habe. Tai besi intelligence na dekhiye nangto hobe ebar theke. ” Bou’er katha shune amar nunku ta ei prothom mone holo choto hoye gelo. Reception e dadiye etogulo sundori meye’ke langto hoye receive korte habe? Ar sabai to darun sab dress pore asbe. Tader majhkhane ami ekdom bachcha cheleder moto nangto dadiye thakbo? aar receive kora mane to hasimukhe seta korte hobe. Sei somoi meyegulo jodi amar…ar bhabte parlam na, mathata tole gelo.

“Eto vebe ki korbe? Ei je amar samne je obosthai acho, tate lajja korche seto bujhtei parchi kintu evabe to maniye niecho. Ami tomar theke onek choto, tahole arekta choto meyer samne langto hoye lajja paoar to kono jukti nei. Eta thik je ekdom achena meye’r samne jachcho, temni eta dekho, nunku to tomar ektai. Ar ek jinis to ekbari revealed hoi. Bar bar to ar tomake “langto” in the sense hote habe na. Ekbar langto howa ar sarajibon langto thaka eki bepar.”

Eirokom katha sune aro lajja korte laglo. Erpor rasta ghate jokhon party’r karo’r sange dekha habe, takhan ami ar officer noi, emon keu jar samasta gopon jaiga se dekhe pheleche.

“Achcha sono, aj theke one week, office theke chuti nao. Tomake toiri korte samai lagbe. Office’r jono pant porle party’te abar lajja vabta katbe na. Ami chai na tumi ei kodin langto haoa chara ar kichu niye thako. Ar ekta kotha, Kusum ke bolte bhule gechi meye badite thakle to tumi gown pore thakbe, tahole to or sange amar kathar khelap hoye jabe. Dekho, amar mone hoi party’r kotha vebe tumi meye’r samneo jama kapod poro na. Karon 10-12 bochor’er meyerao party’te thakte pare. Nijeri meyer samnei bou langto kore rekhechilo, ei katha’ta mathai thakle ar lajja korbe na. Tobe ei beparta’te tomake pressurize korbo na. “

“Rina’r samne ami langto thakbo na” ei dudine ei prothom mone hoi ekta katha bollam. Tobe sune kemon, ekta laglo, nijer meyer samneo jama kapod porar adhikar’tao jeno amar ar nei.

“Ok. Gown er niche kintu kichu parbe na.” Bole ekta magazine niye porte laglo.

“Kusum ele ki gown pore darja khulbo?” amar bhabna chinta jeno guliye jache.

“Tomar choice tobe amar mone hoi langto hoye kholatai better nahole abar ekta scene create hobe ar O jodi bole je boudi ami dada ke langto kori, tahole or hat diei, tomake langto korbo. Hazar hok, meyeta kono taka niche na. Ektu jodi langto korte chai, tahole ar na bola jai na.” Ipsita bole abar magazine porte suru korlo. Ektu pare mukh na tulei bollo, “ranna ghar e giye makhan er jar ta niye eso.”

Ami langto hoye rannaghar er dike hata lagalam. Odike abar Mrs. chatterji’r dorja janla khola,

jodio ghar gulo ondhokar. Bhoi korchilo, oi ghar theke keo nazar rakhche na to. Ami makhan ta niye bou’er samne table’er opor rekhe pechone hat diye dadiye thaklam. Ipsita dhakna khule ek angule makhan tule abar boi porte laglo. Ami bujhte pere angul’tar kache, nunku ta nie gelam. O mukh na tulei amar purushango tar opor halka kore makhan lagate thaklo. Or choa’te nunku ta sange sange lamba hoye gelo. Sundar kapode susajita ekta meye tar husband ke lengto kore sabcheye gopon jeigai makhan lagiye rakche, jate seta presentable kora jai. Vebe amar mon ta hahakar kore uthlo. O monehoi kichu ter pelo na, sudhu angul diye nunku te dubar toka dilo ar ishara korlo jar er dike. Ami or angul ta niye makhan er jar e dhukiye makhan tule abar nunku’r opor niye elam. Tao to onno keo dekhche na, kintu kal theke onekta samai kusum thakbe. Or samne….

“Thik ache. Ebar jar ta rekhe eso ar drawer’e skipping robe ta ache. Amar samne ektu skip koro to. Etar opor ekta game kora hobe hoito. Gopa bolchilo.” Ipsita’r kothay ektu jeno tamasha’r abhas pelam.

“Ami ki sudhu ekta nunku naki tomar kache…..” bou khop kore makhan makhano nunku dhore bollo “Parti’r meyegulo kache tumi ekta nunku ar baki’ta ekta support-system chara ar kichu noi. Amar kache tumi husband, tai ota charao sab part’e nozor dite hoche. In future, esob emotional kotha bolbe na, karon ekta langta lok niye ghar kora is not easy.”

Mukher opor ei kotha sune, amar matha het hoye gelo.

“Ekta jinis miss kore gechi. Ektu ghure darao to.” Ipsita kothai ektu obak hoye ghure dariye jeta bhujte parlam tate lajja’e puro sorir lal hoye gelo. O amar pacha phak kore …..

“Ei jaigata hoito keo keo dekhte chaita pare. Bola jai na. Sudhu nunku niye pore thakle to cholbe na. Thik ache, dekhi ki kora jai. Jao, skipping shuru koro.” Ami opomane’r chote ar norte parchilam na. Hotat pechon dikta jale uthlo. Dekhlam magazine ta dure giye porlo. “Ota ene, skipping suru koro. Right now.” Ami bhoi peye magazine niye or samne rekhe, skipping rope ber korlam. Seshbar’er jonno or dike ekbar dekhlam, jodi eto’ta opomaner hat theke bacha jai. Kintu na, or chokhe sudhui hasi. Dutin bar kortei Ipsita khil- khil kore heshe uthlo. Amar nunku ta emon vabe laphache je kono meye dekhle hese phelbei. Bou’er samne kortei lajjate amar duchokh jal’e vore gelo. Ipsita kintu ek mone amar nunku nach dekhe jache. Amar mone porlo o bolechilo oi jaiga’ta te jhunjhuni ba ekta kichu lagabe. Tahole to…

kotokhon korchi mone nei, sudhu amar mone uthal pathal hoche. Eto laphalaphir jonno, nunku muscle ta betha korche. Ipsita amake langto kore moja pache, ar ami nijer baritei aj

nangto hoye ghure berachi. Hotat phone’e porpor koekta sms elo, o amake ishara korlo, thamar jonno. Ami ektu rest nite bose porlam matite. Dekhlam o sms ta porche, ar mukh ta

khusite vore geche. Amake ishara kore sofai uthte bollo. Nischoi bhalo kichu khobor.

Ami sofa’te bostei kirokom jeno laglo. langto hoye kokhono ebave boshini to, ar pase eto sundar saree pora amar bou. Or achal ta hawa’te ude amar nunku’r opor porlo. Darun

ekta anubhuti. O amar dike fire ektu hese bollo, “Jano, ekhuni Gopa’r message pelam. O party co-ordinator to sab fix korche. O bollo, ar kono meye naki husband niye aste parbe

na. Mane keu obviously bor ke langto korte pareni. Mane jeta darache, je tumi ekai thakbe langto hoye.”

Sune amar heartbeat kichukhon’er jonno stop hoye gelo. O belo chollo,” Amar je ki anando hoche! Tumi amar man rekhecho. Ar tar jonno…” bole mukh’ta amar nunku’r opor

namiye anlo. Tarpor nunku’tar opor ekta choto kiss korlo. Ami jeno hawa’te bhaschi.

Ektu parei por por message aste suru korlo. O amar dike phone ta barie dilo, sms gulo porchi ar mukh lal hoye jache,

Nipa: “congratz, for keeping your husband naked. Please, keep his cr***h unshaved. It’s better that way”

Priyanka: “You are a revolution ahead. Bring your husband to our place, naked ofcourse. “

Monica: ” Amar bacha meye’tar janna aj nappy kinte gechilam. Mone porlo, dada to etuku’o porte parche na. Congratz.”

Riya: “Meyeta to ekhono baritei nei tai na? Or samneo ki….. plz janas. Feeling excited.”

Gopa: “Ekta class 10er meye ache. Porte chai. Borke jigesh kor. Or ma bolche, badite giye porate habe. Langto thakle besi maine. Reply quickly.”

Arpita:”Amar choto meyeta’ke niye jabo. Boro’tar office jete parbe na. Hare, tor bor to langto thakbe. Amar meye ki bole dakbe? Langtokaku na langto’da na sudhu nangto. Plz

jana.”

Sucheta: “Ipsita’di darun korecho. Dadar ekta chobi(nangto) amar mail-id te pathao. Plz. Mangalbar ja jambe na. Acha onar janno ekta socks kinechi. niye jabo? Asol jinis to kholai

thakbe. Reply.”

Srimoyi: “Tor barke amar bari’te plz ekdin niye ai. Amar dui meye sabe adult holo. Ar biology niye porche to, ami oder parai. Tor bar’er to nunku intact, tai na, mane circumcised

noi. Tor borke diye ektu male anatomy ta dekhiye debo. Anekdin dekha hoini, anek golpo hobe, ar tor bor er sange’o meyera ektu alap korbe. Tobe, amar meyera kintu bolche,

kaku’ke langtu kore ante habe. Dekh na try kore. Langto bor’er to ar matamat noar darkar nei.”

Lipika: “Amar borta kono kaj kore na. Amar takai sansar chole. Ajke khub mezaz dekhachilo. Tor katha boltei chupse geche. Bhalo chele hoye geche. Bhabchi, jama kapod ki

khule nebo na thakbe. Tui ki bolis?”

Sagarika: “Amar office’e koekta chele probation e join koreche. Bhabchi langto kore kaj korabo. Meyeder’i office oi kojon bad diye. Ekdin ay office’e. Tor nijer hatei langto korbi.

Tui aj amader gorbo.”

Tina:”Barir bariola, bishon jhamela korche, flat charar jonno. Bhabchi, malkin ke proposal debo, bor jodi langto hoye onar ghar e kichu kaj kore dey, tahole hoito thakte debe.

Bravo.”

Emily: “Aunty, can I bring my friends to the party. Please. We have never seen such a big guy, roaming naked among the girls. One question, will your guy be shaved or not. I

assume it’s not his choice anymore. Atleast, keep him trimmed.”

Ayesha’di: “Amar girls school e tor borke ekdin niye ai. Ekbar langto kore sabkata class’e ghuriye debo. Party’r jonno ekdom ready hoye jabe. Tobe hoito permission nite habe.

Nahole, morning e assembly’r somoi pach minute’r jonno nangto kore present korte pari. Reply quick.”

Rima: “Janis cheleta college’e bhorti hoye khub bar berechilo. Kal rat’e dekhi laptop e playboy er video dekche. Kotodur aspordha, meyeder langto video dekche!!!!Ajke tor

khobor shonar por, oke sabar samne(mane ami ar meye, cheler choto bon) langto kore diyechi. Oma, chele ekdom changed. Darun bepar. Mukh nichu kore bon ar mayer samne

langto hoye ghure bedache. Langto meye dekhte giye nijei langto hoye ghurche bon samne. Tor jonnoi ei jor ta pelam. Borke bolini, tabe oke niye chinta nei. Besi bolle, okeo eki

obostha korbo.Chaliye ja. Ekdin borta’ke nie ai. weekend’e ele ami ar meye dujonei bari thakbo.”

Porte porte kokhon jeno nunku ta boro hoye gechilo. Mukh tule dekhi, bou achol diye ota’ke ador korche. Bujhte parlam, amar sange onek gulo chele’r ajke samman gelo. Era hoito

keu baba, keu bhai, keu dada ba sir, tobe aj theke era sabai sudhui langto chele. Ar kichui noi.
Porer din sakal bela ghum theke uthe bes halka lagchilo. Uthe mukh dhuye, ektu push-up kore fresh hoye mone holo ajker din’ta ektu onno rakam lagche keno. Chul achdabar jonno

aynar samne ese ekta shock laglo. Eki, ami to puro langto. Bou’er training e saradin langto theke ar mone nei je eto dami ekta jinis jibon theke bad pore geche. Chokhe jal ese gelo.

Mone holo jeno puro prithibi’ta jeno amake dekhe hasche. Aj to abar independence day. Je din sabai nijer desh niye gorbo kore, sei din kina ami…. Ei deshe naki goru ar

meyemanush eki class’e bola hoto. Sekhane ami kina ekjon bangalalana’r hate langto? Mon’e mon’e bollom er against e bidroho korte habe. Onek hoyeche, ar na. Bou bolechilo

nunku te hat na dite. Ami ebar mon sakta kore, dan hat diye nunku ta dhorlam. Mone holo nunku ta jeno kadche,” Tumi shara jibon amake sab samai lukiye rakhle, eto ador korle,

ar aj kina amake sabar samne khola obosthai ghurte hoche.” Ami nunku ta ke ektu hat buliye bollam, ” Ar tomake karor samne beijjot korbo na.”

Ebar gharer charpashe chokh bolalam, kintu eki, porar moto kichui to nei. Amar meyer jamakapod, bou’er dami sari jhulche kintu amar jama, pant emonki ekta underwear obdi nei.

Ekta gamcha dekhlam dure, kintu ota emon jaigai, je Mrs. chatterjee’r flat er janla theke sab dekha jai. Ami kache giye ektu uki mere dekhlam, Sharmistha janla diye dure’r ekta badi’r

dike cheye ache. Ami vablam jodi chat kare gamcha’ta niye shore jai, tahole o dekhar agei…. Sharmistha ke dekhlam khub sundar lagchilo. Ekta sari poreche, chule’e clip, eyebrow

pluck kora. Voi holo jodi o dekhe fele? Ami ready holam, mone vablam ei dinta’r janna kata lok pran dilo. Aj amar’o man bachano’r ladai. Aste aste pa tipe gamchar kache giye

dadalam. Hotat jeta holo, seta shune mone holo paer tola theke mati shore jache. Nich theke bou chechiye uthlo, “Ei suncho. Uthe poro. Eto bela obdi ghumache!!! Eta bari office

noi.” Sharmistha awaz ta shunte peyechilo mone holo. Sange sange janla’r dike mukh ghoralo. Amar heart beat bandho hoye elo. Dekhi or kopal kuchke ki jeno khub dekhar chesta

korche. Ebar mone porlo, amar ghorta’te bhorer alo janla diye ese porchilo. Light off chilo. Alo adhari te bairer chokh dhadhano alor theke dekhte paoa ektu problem. Ami

Sharmistha’r ekebare sojasuji obosthai puro langto hoye. Amar pa jeno jame geche. Evabe thakle ar kichu’kon pore or chokh soye jabe. Andhakar’e ekta langto lok dekhte pabe.

Ami vablam jadi ekdom static thaki tahole nischoi andhakare amake differentiate korte parbe na. Nishash bondho kore fellam.

Dekhlam or chokh duto aste aste boro hoye gelo. Jeno prithibi’r sabtheke boro wonder dekhe feleche. Or mukhe dekhlam ektu hasir rekha fute uthche.

Ami khub disciplined master chilam. Pora na parlei kan mule ditam. Emon master’ke jadi kono meye langto dekhe felle, moja pabei. Hotat dekhlam o jibh bar kore thot’tar opor

bolate laglo. chul’er clip ta khule dilo. Ore chul’ta dheu’er moto buker opor ekshe porlo. Ei dekhe amar nunku ta aste aste…. vishon chesta koreo atkate parlam na. Meyeder ei

astre’r kache sab purush’i bacha. Nunku ta puro khada hoye dadiye gelo. Janla’r roddur tao amar dike ghure jache. Jeno puro prithibi’ta sarajantro kore amai langto kore sabai’ke

dekhate chaiche. Ebar dekhi o mukh tipe haste shuru korlo. Mone holo jeno sab man-samman mati’te mishe jache. Hotat dekhi o nichu holo. Sange sange ami pechon dik’e gamcha

niye ghure dariye dekhi Meyeta ek angul’e ekta gamcha tule mukh’ta ta chucholo kore chuk-chuk kore tease korche. Bojha gelo ar labh nei. Sarbanash ja hawar chilo hoye geche.

Amar ghar het hoye gelo. Sudhu ektai asha, je mukh ta’r opor kono alo ese poreni. Hoito pore manage kora jabe. Ekhono hoito sujog ache. Jadi sare jawa jai.

Hotat bou ghare ese dhuklo. “Eki gamcha niye ki korcho?” Tarpor amar mukh dekhe bujhlo kichu ekta hoyeche. Janla’r samne astei sab bujhte parlo. Ektu hasi hasi ar maya’mesano

mukh kore amar dike takiye, janla ta adal kore daralo .
Ebar bou ar Sharmistha mukhomukhi.

“Kire Sharmi, eto seje guje kothai?” Bou pas katanor jonno bollo.

“Kakima, school e ekta program ache, tai ready hochchilam. Kaku kothai?” mishti kore Sharmishtha bollo.

“Kaku to ektu agei beriye geche office’e. Keno re.” Bou’er kathai jeno amar pran firlo shorire.

“Oi ghare kake jeno dekhlam, kakima.” Mone holo jeno katha’ta bole hasi chaplo meyeta.

“O acha, amar bhaipo, esche’re kichudin age. Tor theke ektu boro. Ei ghorei ghumachilo.” Bou’er katha sune mone holo or ektu biswas holo. Duto meye ekhon amar bhagyo

contol korche.

“Tui chul badhisni?” Bou’er kathai jeno kichu’ta sandeho chilo. “Bedhechilam kakima, khule geche. Apni ektu bedhe deben?” Amar bou bhalo hairdresser chilo. Shune amar

heartbeat abar bere gelo. Tar mane meyeta ebar amader bari asbe?

“Chole ai, ami free achi.” Bole bou amar dike fire mukh tipe haste laglo. Sharmistha sore geche dekhlam. “Ema, sat sakale oto tuku meyer samne tumi….” bole Bou hasite khil khil

kore fete porlo. “ki lajja, ki lajja.” haste hastei bollo. “Gamcha’ta nite giye naki? Dekhecho bou’er katha na shunle ki hoi. Langto hoyei to niche namte parte. Meyeta to asche,

darja’ta ei obosthai khule dio. Ar to lajja peye labh nei.”

Tarpor amar mukh dekhe ektu kache ese amar chul e hat buliye bollo. “Eto anander bepar. Dekho to ekhono ota dadiye ache. Ektu parei Kusum asbe. Onek programme ajke.

Evabe lajja pele habe?” Bou’er adore ami sab bhul’e bollam. “Onek din tomake…..” Sange sange rage bou jale uthlo. Amar kan mule diye bollo, “Eto sahas tomar, amake kina naked

hote bolcho. Bhule jeo na, ami chailei ekhuni arekbar Sharmi’ke deke….” Ami or pa dhore bollam,”I’m sorry. Please, erokom korona. ” Bou ektu shanto hoye bollo. “Er jonno

tomake sasti pete habe. Jao, janala’r samne giye kan dhore 50 bar uthbos koro. Sabai dekhuk badite ke master.” Ami konorokome bollam, “Kintu Sharmistha jodi…” amake thamiye

o bollo. “Ja bolchi koro, nahole o ele or samne….” Ami chat kore hisab korlam O hoito berieche bari theke, rasta cross kore amader bari floor e aste pach minute lagbe. tai voi nei.

Janla’r samne giye uthbos korte laglam. Hotat shunte pelam, ghare Sharmistha jeno phone’e karo sange katha bolche,”Biswas kor satti mone holo jeno.” Bou amar uthbos dekhche

ar or katha shune hasche. Mone holo landline’e call esche. Ota or gharer koner dike. Ami prarthana korlam jeno phone ta cut na hoi, nahole o abar janla’r kache ese… Dekhi katha

bolte bolte janla’r kache ese, pechon dik kore helan diye dadalo. He bhagoban, mobile. Eibar jodi pechon fere tahole dekhbe master langto hoye…. Uthbos shuru korar somoi,

nunku ta choto hoye gechilo, ekhon abar boro hoye geche. Protyek bar uthe daranor samai, laphiye uthche. O bolche sunlam, “Kakimar kotha’ta thik biswas holo na. Aaj to chutir

din, office to bandho. Acha, tui janis, badite erokom kore keu…..Ki bolli? CFNM. seta ki? ….. ema, ja kije bolis na. Erokom hoi naki. Koi ma to kokhono….” bole ghure daralo.

Ami bose parlam, kintu mone holo jeno….”Ektu hold kor to. Abar koreche monehoi. Kakur no. ta dial korchi. Mobile ring holei bojha jabe kaku kothai. Ja, ki bolchis… nangto

kaku,ish…” bole phone ta kete dilo.

Takiye dekhi, amar phone ta khater opor’e pore ache, bou’er hater nagale. Kintu Ipsita hat duto bhaj kore helan diye dadiye muchki muchki hasche. Ami phis phis kore bollam,

“Please, ota silent koro.” Bou’er hasi ar thame na. Ipsita bollo”aro dubar baki, o mukh nichu kore dial korche. Kore nao.” Ami sab sahas niye chokh bondho kore kan dhore uthe

dadiye bose porlam.

“Ema…” Sharmistha’r gala shunte pelam. Ami kede fellam prai. Eto’ta opomanito jibone hoini. Ipsita hese uthe bollo, ” Ki lajuk tumi. Takiye dekho, kichu hoini. Or phone ta slip

kore phuler tabe pore geche. Ar ekta.” Ami ektu matha uthiye dekhlam, Sharmistha hat dhukiye phone ta ber korche. Ebar ar voi nei. Chat kore kan dhore dadatei…. Sharmistha

ekdom amar mukhomukhi. Kintu or chauni dekhe ektu onno

rokom laglo. Monehoi, dekhchena. Asole khub mon diye hat dhukiye khujche ar

anamonoshko hoye edike takiye ache. Ami bostei bhule gelam. Kotokhon ebave or

samne langto dariye chilam mone nei. Hotat dekhi, or je hat’ta adale chilo, sei hate oi

phonta. Amar payer tolar mati jeno sore gelo. Tar mane o etokhon dhore ja ghtchilo seta video korchilo !!!!!!!!
-
Lajjai mukh nichu hoye gelo, dekhi nunku ta ager motoi khara hoye geche. Rod pore glans ta chakchak korche. Janla’r theke aste kore sore gelam. Ei’vabe opomanito howatai ki seshe lekha chilo. Ipsita hoito bepar ta dekheni. Mobile ta amar hate die bollo. “switch off kore diechi. Taratari hat, mukh ar ota dhuye niche ese breakfast ready koro. Ami ektu opara theke bazar kore aschi.” Tarpor kaner kache mukh ene fisfis kore bollo, “Kusum ele’o ki eivabei thakbe eta?” bole amar nunku ta ek angul die duliye diye chole gelo. Ami dekhi bou ar amar langto bepar ta ke pattai diche na. Jeno etai normal. Tomra jara vabcho, ami kono protest korchi na keno, tara jama pant pore eta vabcho. Ami’o ekdin jama pant portam, tomader moto. Sei somoi amio kono injustice holei protest kortam, kintu ekta manush langto thakle chinta vabnai bodle jai. Protidin jodi ekjon achna meyer samne langto hote hoi, nijer baditei langto hoye ghure berate hoi, tahole se ki ar protest korar sahas pabe? Chele’ra langto thakle samasto khamatao ga theke neme jai. Meyeder seta’tei anando. Ar amader samne je jinis ta jhulche, seta kapod charlei meyeder katha moto chole, tate ora aro tripti pai. Jodio’ amake langto kore rakhar jonno kichu cost bede gechilo, jemon janla dorja’r curtains kinte hoyechilo ar bazar dokano bou’kei korte hoto, tobu etuku kharcha jekono meye’i korbe karon badale puro khamata’ta oder hater muthoi.

Sharmistha amar meyer boyoshi. Parai ar shob kota meye jante deri hobe na, je Ipsita’di tar bor’ke langto kore rakhe. Lajjai amar chokh diye jol beriye gelo. Tokhono amar nunku ta hawai dulche. Hotat dekhi sei janla diye ekta kagoz’er tukro ese porlo. Ami seta tule niyei dekhi ja andaz korechilam tai, Sharmistha’r lekha.

“Sir, ami jani, Ipsita’di apnake aj ar kono rokom jama kapod porte diche na. Apni aj barite sampurno anabrito hoye meyeder samne ghure berate baddho. Prothom’ta biswas na holeo ekhuni ja dekhlam tate amar jibon palte gelo. Apni amar jibone dekha, prothom NENGTO chele(nengto master o, jeta hoito prithibite prothom dekhar saubhgyo amar), jodio age chobite bondhuder kache dekhechi kintu LIVE ei prothom. Eibar bujhlam, keno didi apnake lengto kore rakhe; satti’e apnake jama pant chada khub sundar lage, specially apni excited thakle…. Apni amar kan mule dile bishon rag hoto, aj apnaki ei obosthai dekhe khusite amar mon’ta bhore gelo. Erpor pora na bojhate parle kintu….Ami jani apni khub voi pachen je ami sabai ke bole debo, kintu apnar voi pabar kono karon nei. Ami jani apni amar jonno anek upakar korechen. Apnar jonnoi ami eto valo result korechi. Apna’der barite onekdin ekla porte gechi, kintu apni kono advantage neor chesta korenni. Ar kichudin porei hoito college’e admission niye onno kothao chole jabo. Ar dekha hobe na. Ami chaina keo apnake opoman karuk. Kintu etao jani, apni Ipsita’di katha mene langtoi thakben, karon apni Ipsita’di ke valobashen. Ar tar janno apnake ami sammano kori, se apni LANGTO thakleo. Sudhu ektai request, apni arekbar janla’r samne oivabe asun. Amar camerat’e ekta chobi tule rakhbo. Biswas karun, ar kauke dekhabo na, sudhu kono nirjan dupure jakhan onek dure thakbo, takhan ei chabi’ta dekhe apnar kotha mone porbe. Amar request rakhben to? Jodi yes hoi tahole janla’r ekta palla bandho kore khule din. Porar por kagoz ta puriye felun.

Porte porte chokhe jal ese gechilo, kintu seshta pore abar voi korte laglo. Jodi’o Sharmistha valo meye tabe, jodi amar langto photo sabai’ke dekhiye dei, tahole? Kintu o ichche korle bepar’ta ratiye diteo pare. Amar sundari student amake langto dekhte chaiche! eirokom aj porjonto kokhono kono master’er hoyeche kina jani na. Kintu meyeta’r request ta phela jai na. Eto meye amake jor kore langto kore diche, ar ei meyeta eto sundar kore request koreche, seta deny korbo? Thik korlam, oke ekta sujog debo, kintu only for 5 minutes. Uthe dadiye or kathamoto’n janla diye signal dilam.

Hotat mone holo. Eki korchi, amar ki matha gelo? Ei tuku meyer samne langto hoye thakbo? Kintu etao thik sunday oke hoito amake langto hoyei parate habe. Bola jai na hoito oke diyei Ipsita amake langto korate pare. Abar arek dike sab kapor jama to lock kora ar chabi’r gocha Ipsita’r komore jhulche; paoar kono chance nei. Ekhon’i or samne langto hole ekta santana thakbe je ei meyer kache agei amar abru geche. Natun kore lajja pabar kichu nei. Kintu Ipsita abar bepar ta dhore phelbe na to? Pach minute kete gelo.

Letter ta lighter diye jalate giye theme gelam. Mone holo amar jama kapod’o keu jeno agun diye jaliye diche. Amar nunku ta ekhon sabar kache free entertainment. Hotat, arekta kagazer tukro paer kache ese porlo. Dekhi lekha:

Pach minute’r modhye toiri hoye, janla’r samne chole asun ar ha gaye ektu tel mekhe asun, specially nunku’ta te, ami sunlight er reflection ta dhore rakhte chai. Kane hat dile aro valo hoi. Ektu kan dhore uthbos kore warm-up kore nin. Ami camera ready korchi. Uff, ki excited lagche na! O ha, tel lagano’r somoi ekdom oisob noi kemon. Nahole, Ipsita’dir kache amake boka khete hobe.

Kagoz’ta pore ami ekdom stunned hoye gelam. Eivabe kholakhuli amar sabtheke gopon jaigata niye katha bolche. Obosho, ar monehoi, ota gopon noi. Amake chara prithibi’r sab meye ota niye khela korte pare. Vebe chokhe jal ese gelo. Eto opomaner poreo kadte parchi vebeo obak holam. Oituku meye amake bacha’der moto langto hoye tel makhte bolche. Kintu ar na shunei ba ki habe. Langto jodi or samne daratei hoi, tahole ektu tel mekhe sundar hoye jaoai bhalo. Uthe pore washroom e giye gaye tel makhlam, nunku’te tel ditei ota khada hoye uthlo. Konorokom’e nijeke atkalam, karon langto thakle ei bepar gulo ar adal thake na. Sharmistha na holeo Ipsita dhore felbei. Tarpor ghore ese kan dhore uthbos start korlam. Ekbar kore korchi, ar kaste jeno buk fete jache. Jei meyeta pora na parle kan mola kheto amar kache, aj kina tar samnei….Ekbar uki mere dekhi Sharmistha camera set up korche. Or chul’ta ekhono khola. Jeno amar langto photo na tule o chul badhbe na. Hotat o chokh tule amake dekhe mukh tipe hese uthlo. Ami lajjai sore aschi dekhe, o ragi ragi ekta ishara korlo. Tarpor ki ekta mone portei chulta te hat buliye matha sundar kore ghoralo, ar puro chulta or buker opor ager moto ese porlo. Ekta chuler lock kapal theke gal’er opor ese poreche( jetake zulf bole Hindi’te) Hat badiye ekta lipstick niye thot ta sundar vabe magenta color korlo, tarpor amake ishara kore samne aste bollo.

Eisob dekhe ami jeno mantramukdho hoye gechilam. Aste aste janlar samne ese dadatei, dekhi o chokh namiye amar nunku ta dekhlo. Or mukhe ekta misti hasi. Vishon lajja korte laglo. Hat diye samne’ta dhaka dilam. Hotat oi lipstick ta janla die chudlo amar dike. Ami ota dhorar jonno nunku theke hat shariye laph dilam. Puro langto hoye laphatei, nunku ta tao laphiye uthlo. Ami daranor pareo mone holo, tokhono ota lapache. O konorokom’e hasi atke amake ishara ekta ishara korlo, jeta bujhte pere amar mukh lal hoye gelo. Amar nunku ta dekhiye o thot’er opor angul rakhlo, tarpor arekta lipstick niye ishara korlo. Bujhlam o chaiche lipstick ta niye amar nunku’r opor ektu buliye dite.

Ami lajjai ekebare jeno mati’te mise gelam. Tobe etodur egiye ar pechano jai na. Man samman sab bhule lipstick er cap ta khullam. Mone holo ei jinistar’o ekta cap ache, kintu amar… Tarpor ar or dike na takiye nunku’r opore skin ta’r(foreskin) opor lipstick bolate laglam. Ektu agei eita or thot’er sporsho peyeche. Mone holo jeno amar nunku ta teo or thot’er choa laglo. “Ota noi, sudhu glans ta.” Shune chamke takiye dekhi, o kathata bole lajjai mukh tipe hasche. Eto sundor ekta meyer samne ulanga hoye dariye thakte thakte ghore lege gechilo, abar mukh namiye glans er opor stick ta bolate laglam. Nunku ta ekdom khara chilo bole, glans ta puropuri beriye poreche. Kichukhon pore nunku’r daga’tao lalche hoye gelo. Ebar bujhlam O keno erokom korte bollo. Lajjai amar mukhta ta lal hoye gechilo, kintu nunku ta tulonai ektu fade lagchilo. Ebar amar nunku ar mukh .
dutoi prai same complexion mone holo. Click kore ekta awaz hotei bujhte parlam amar sabtheke lajjajanok muhurto’tar chobi o tule nilo. Tele lipstick makhamakhi hoye nunku’ta jeno alote glow gorche.

Hotat shunlam o ektu keshe uthlo. Mukh tultei dekhlam o ishara kore thamte bollo, ar lipstick tar dike ishara korlo. Ami cap’ta atke ota abar or dike chude dilam. O lipstick ta catch kortei, or buk’ta dule uthlo, ar amar nunku ta aro khara hoye gelo. Sharmistha ektu dushtu vabe ishara korlo, “naughty boy”. Tarpor buker kapod ta ektu tule lipstick ta or cleavage’er modhye fele diye diye ishara korlo je ota ekta souvenir hoye thakbe. Kivabe samai katchilo jani na, kintu hotat dekhi o komore hat diye ragi ragi mukh korche. Ami bujhte pere kan’e hat dilam.

O Camera ta tule onekkhon dhore focus korlo. Amar jeno ar kono hus chilo na, je langto hoye tel mekhe nunku te lal rang kore dariye achi. Camera shutter awaz hotei amar ghor kete gelo. Dekhi amar sab kichu cemara’te bondi kore, o jiv kete hasche. Sei hashite jeno biswojayer anando. Ami ebar ar dadate parlam na. Abar lajja peye samne’ta adal korlam. Ebar o jore hese uthlo, jeno bolche, ar ki baki thaklo sab’e to khola, ekhono lojja. Dhop kore matite bose porlam, ar nijer bokami te matha thuke kadte icha holo. Sunte pelam, Sharmistha khil- khil kore hasche. Hotat jore hawa ditei, kagoz duto janla’r kache ude gelo. Voi peye ami laph dilam dhorar jonno, kintu tar agei dekhi ogulo hawa’te udte udte Mrs. Chatterjee’r flat’er chate giye porlo. Chat’e onek gulo meyer golar awaz paoa jache …
Erpor eto gulo meyer samne…..Ish, ami ar kichu vabte parchi na. Kagoz ta giye portei meyegulo “eta ki, dekhi dekhi” bole chechiye uthlo. Janlar kachei dadiye chilam. Amar

chardikta jeno dulte laglo. Mone porlo kagoz’e jodio amar nam nei kintu Ipsita’r nam lekha ache, tai ekbar porlei sabai bujhe jabe bepar’ta. Hotat, mone portei dekhi Sharmistha

amar dike takiye muchki muchki hasche. Amake o ishara korlo shanto thakte, o manage kore nebe, bole janla theke sore gelo. Amar matha ar kaj korche na. Ekhuni hoito bou ese

porbe. Or samne ei lal nunku, niye kivabe mukh dekhabo? Mone portei washroom er dike chutlam. Giye shower khule gaye bhalo kore shaban dilam, nunku’te onekhon dhare

shaban ghoslam, kintu lipstick er dagta glans theke kichutei jachena. Ipsita’r bole geche or permission chara kono tampering kora mana(nunku’te). Edike saban deoate, abar ota

khara hoye gelo. Ekebare jeno amake beijjot korei chadbe.

Hotat, bell beje uthlo. Amar heart attack howar obostha. Kono rokome ga muche, langto hoye niche doudalam. Ekjon officer nijer baditei langto hoye chotachuti korche. Loke

dekhle ki vab’be. Dorja kholar agei glass die ja dekhlam, tate mone holo ami agyan hoye jabo. It’s Kusum. Amar pa kapte laglo. Ajke abar bhalo kore seje esche. Chule sundar

khopa kora. Ei meyer samne amake…… Hotat, mone porlo, Ipsita’r hoito phirte deri hobe. Tahole… chute giye gown ta pore nilam. Sab sahas niye dorja’ta khultei, Kusum amake

dekhe ektu chomke gelo.

Amar matha theke pa ekbar dekhe niye bollo, “Boudi bolechilo, badite apni….. Tahole, ota mithe kotha chilo. Ami ki mukh dekhe free’te kaj korbo naki?”

Or katha shune opomane amar kan lal hoye gelo. Ami kichu bolar agei bollo, “Oi magi’ta tahole amake boka banachilo. Ami takhani sandeho korechilam, emon hoi naki. Barir

marad’ke….” bole o hata lagalo.

Ami khub voi peye gelam. Ipsita jante parle kurukhetra bedhe jabe. Ami bolte gelam, Kusum ami langtoi thaki badite, kintu gola diye awaz berolo’na. Dorja bandho kore mone holo,

e ki holo amar sange. Eto taka income koreo ki, badite ektu samman pabo na? Gown ta porei sofa’te bose porlam. Nunku’ta to ekhono lal, ki kora jai. Hotat dekhi makhan’er jarta

table’r opor rakha. Ipsita bolechilo….. Daude giye jar ta khullam. Gown khule onekta makhan niye glans’er opor ekta layer diye dilam. Eibar ar kono bhoi nei.

Abar bell beje uthlo. Bhulei gechilam ami langto. Oi obosthai dorja khulte jetei mone porlo, kintu anek deri hoye geche. Takiye dekhi Ipsita.

“Oma, ki sweet lagche go tomake. Sonamoni?” Or hate onekgulo plastic, amake sab dhariye dilo. Ekta plastic amar khara nunku’tate jhuliye dilo. Ami chamke giye charpashe

dekhlam. “Ekhono eto lajja?” bole o mukh chapa die hese uthlo. Hotat mone holo nunku ta jeno nije thekei lapache. Niche takiye ja dekhlam amar nishas bondho hoye elo. Oi

plastic e jento mach laphache. Duhat bhora bajarer thole, plastic ta felteo parchi na Ipsita’r samne. Amar ei obosthai o aro hasche. Ami vabchi kotokhone o dhukbe, dorja ekhono

khola. “Tumi bhetore jao, ami diye debo. ” Ami langto hoye sab plastic niye kitchen e gelam. Ekpa felchi ar mach gulo aro laphache, voi amar pran jai jai. Sink e plastic ta rekhe

ektu santi holo. Kintu, ekhono to to dorja bandher awaz pelam na.

“Shuncho, edike eso” Ipsita’r gola shunte pelam, ebar dorja bandho holo.

“Ei document ta te ektu sign kore dao to.Gopa dilo” bole bou ekta kagoz badiye dilo. Pore ami chokhe tara dekhlam. Lekha ache:

The Kolkata CFNM society,
Declaration from men

I henceforth give up all my claims to modesty at the party to be organized by the society. I would remain naked at the occasion on this auspicious day from the arrival to departure

of every guest at the party.Every women present of all age group and status, shall have full authoriy to indulge in me and my private(?) parts. This may include fondling, caressing

or activities of such nature, to the point of reaching climax, but short of ejaclation which shall be the
exclusive domain of my wife. She can exercise this right at her will or delegate

this task to someone else other than anyone of same sexual status as me. I will carry out any task given to me by any girl or woman, even if it disregards my status or elevates my

nudity. I declare all of myself a tool of enjoyment for the female species of the planet. Also, my privates may be rechristened by some other name, although the final approval must

be from my wife. I shall respond to any such name for all time to come. The organizer may include any girl or woman and regardless of any concern whether she is acqainted to

me or not.

Eta pore amar choke jal ese gelo. Vebechilam ontoto choto meyeder samne…. kintu eto jekono meyei attend korte pare. Etodur porjonto namte hobe. Ipsita sudhu ekta pen badiye

dilo tarpor gharir dike takiye bollo, “Eto bela holo, Kusum elona, ki bepar.” Ami voi peye sange sange kagoz ta te soi kore dilam. O khusi hoye bollo, “Sharmi samne jaoar por tumi

khub bhadralok hoye gele dekchi!”

Hotat telephone beje uthlo, “Dekho to ke?” bole o phone ta dekhalo. Ami tultei jeno hadd heem hoye gelo, Kusum koreche. Ami bou’er dike egiye dilam. “Ha, Kusum bol, tui

elina?” aste aste or mukh ta rage lal hoye gelo. Hotat chokhe porlo table’er opor onekgulo lollipop rakha ache. Ektu obak holam, egulo keno anlo bou? Mistimukh korte? Ekhon ar

hoito habe na.

Phone kete diye bollo. “How dare you disobey my orders! Stand up.” Ami voi peye dadiye uthe chokh bondho kore fellam.

“Tomake ami emon sasti debo je jibone ar jama pant porte chaibe na.” Bou gorje uthlo. Ami bollam “ektu aste bolo, sabai sune felbe.” O aro rege bollo”Shunuk, sabai. Amar

samne eso.” Ami or samne jetei o lollipop er wrapper ta chadiye nunku’r makhan ta tule dilo. Ami vablam ebar kapale dukho ache. Lal dagata beriye jabe, kintu o kichu bolche na

dekhe niche takalam. Dekhi makhan’er sange lipstick er dagta uthe geche. O molayam kore hat bolate laglo amar nunku’r opor hat bulotei arame chokh buje elo; shange shange ota

khara. Hoito or rag pore geche. Hotat ektu shurshuri lagtei niche takiye ja dekhlam tate amar heartbeat stop hoye gelo.

O lollipop’er er straw ta amar nunku’r phuto diye….. Eijonno o amar nunku’ta ador korchilo. “Please, Ipsita, ar konodin korbo na. I love you. Please, eta koro na.” Or mukhe

nisthur ekta hasi. Amar chokh diye jal porche ar aste aste lollipop er straw ta nunku’r modhe dhuke jache. Vishon jala korche, mone hoche jeno ar konodin…. Prai purota dhukei

diye Ipsita khil khil kore haste laglo. Ami takiye dekhi, nunku’r mukhe lollipop er candy chara ar kichu dekha jache na. Chokh theke dufota jal nunku’r opor porlo. Ipsita arekta

lollipop niye payer opor pa tule khete laglo. Ami duhat jod kore or samne dadiye khama chaichi. O moneholo mone mone bolche, “Tomar vogoban ekhon ami.”

Kichuta lollipop kheye O uthe daralo. Amar matha theke par puro’ta inspection kore pechon dike gelo. Tarpor jeta holo boltei matha kata jache. Amar pacha fak kore oi lollipop ta

mukh theke ber kore dhokate laglo….”Please, please, ar konodin disobey korbona..” kintu aste aste bujhlam amar sab marjada neme jache ar thanda moto ekta amar pechone dhuke

jache. Ipsita ektu dure giye amar dike takiye haste haste sofate goriye porlo.

sedin chilo world cup football final. ami football dekhte khub valobastam. saradin opekhkha korchilam kokhon khela suru hobe. kintu khela suru haoar somoy holeo amar 3 bochorer boro DIDI ar MA tv te cinema dekhte laglo.ma khate ar DIDI chair e bose chilo. ami amar class 11 e pora DIDI r payer kache hatugere bose haat jor kore bollam “DIDI,please aj ektu khela dekhte dibi amake?” ekjon chOTO VAI hisabe BORO DIDIR kache onurodh chara ar ki korte pari ami? didi kichu bollo na, tv dekhe jete laglo. ami amar sundori didir laal choti pora sundor payer opor matha namie ghoste thaklam, “please didi, ekta din, amar opor ektu daya kor aj.”onekhkhon or paye matha ghosar por didi mukhe hasi jhulie bollo, “ektu paa tipe de amar , tar por debo.” ami didir sundor pa duto kole tule jotno kore tipte thaklam. 30 minute por didike bollam,”didi, please ebar ektu de, 30 minute khela hoye gelo. Choto vaier opor ektu daya kor aj.” didi or choti pora dan paa tule amar mukhe sojore lathi marlo ekta. “ didir kivabe seba korte hoy Janis na janwar? evabe udasin hoye paa tipbi ar tar jonne toke khela dekhte dite hobe? valo kore voktivore paa tep, amon vabe jano mone hoy tui tor provur pa tipchis.” ami didir paye matha thekie boli, “nischoy didi, tui to amar provui.” ami didir payer tolay suye pori, didi bina didhay amader mayer samnei amar mukher opor or laal choti pora paa duto tule day. maa bole, “valo vaier moto boro didir seba kor.” ami boli “korchi ma.” didi or choti pora dan paa ta rakhe amar thoter opor, amar thot jora nie khelte thake or chotir tola die. ar or choti pora ba payer tolata ghoste thake amar chokh ar kopaler opor. ami didir paa besh mon die tipte thaki.
didi khelte thake amar thotjora nie, or choti pora payer tola die. or chotir tolata besh moyla. amar thoter fak die didir chotir tolar moyla mukhe dhuke jete thake. amar kano janina odvut valo lagte thake mayer samne evabe didir seba korte. ami aro mon die tipte thaki didir pa,ar chumbon korte thaki didir dan choti pora payer tolay. thik sei somoy t.v.r awaj sune bujhte pari didi khela dieche, kintu didir ba paa ta thik amar chokher opore thakay ami kichu dekhte paina. didir daya paoar ashay aro mon die or paa tipte thaki, or dan chotir tolay aro govir vabe chumbon korte thaki. didi khela dekhte dekhte amar mukh nie khelte thake or choti pora payer tola die. hothat evabe didir seba korte parar jonne kamon ekta odvut valo laga ghire dhore amake. amar samner tv te amar prio dol spain world cup final khelche, kintu ami dekhte parchi na, karon amar 3 bochorer boro didi or choti pora pa die amar chokh dheke rekheche,ar or onno pa die khelche amar thot nie. ekotha vabtei ek opurbo anonde mon vore jay, porom voktite didir pa tipte thaki ami. didi or dan paa die amar thot ta khub jore ghoste thake. amar didi or chotir tola die ekbar amar thot ekdike bekate thake, ar tarpor onnodike. amar ei khela dekhte na paoa, ar sei obosthay evabe didir seba korte kano janina opurbo lagte thake. ei na paoar modhdhei ki ek ononto paoke abiskar kori ami. maa bole othe, ” tv r cheye tui vaier mathake ball banie tor paa die jei football ta khelchis, seta dekhte onek besi interesting lagche. didi bole, ami oder cheye onek valo footballer, dekhbe kamon kick marbo ei ball tay? bole didi or dan pa tule amar galer opor sojore ekta kick mare, thik amon vabe jano o footballer der moto ball e kick korche. ma hese othe didike amar mukhe kick marte dekhe.
didi amar mukh nie football khela chalie jete thake. kane sunte pai tv r football comentry, kintu chokhe dekhte pai, amar mukhke ball banie didir football khela. amar mukh ar mathar sorbotro didi lathi marte thake jore jore, ami khelar commentryr sathe sunte pai ma ar didir hasi. ektu pore maa bole kintu kheloar ra to choti pore na, shoe pore khele. didi bole, “taito.” tarpor amar mathar opor lathi mere bole, “ja, amar jutota nie ay.” amar mon tokhon didir haate apomanito haoar anonde poripurno, ami didir paye matha thekie didike pronarm kori. tarpor 4 hat paye gie shoe rack theke didir sada sneaker ta mukhe kore nie asi. amake 4 haat paye didir juto mukhe kore ante dekhe ma ar didi hasite fete pore. ami didir payer samne hatugere boste didi amar mukhe lathi mere bole “amar paye juto porie de.” ami matha nichu kore didir paye juto porie di. “ager moto suye por amar payer tolay. akhon tui football ar ami footballer. ekhuni world cup final suru hobe.” ek odvut anondo amar deho monke ghire dhore. ami didir juto pora payer tolay suye pori. didi amar mukhe juto pora dan pa ta rekhe jutor tolata amar mukhe ghoste ghoste bole, “ma, tumi commentry dao.”
ma commentry dite thake, “apnara dekhchen bisso cup football er final match, ekhuni khela suru hobe. apnara dekhte pachchen bisser sreshtho kheloar SAHELI (amar didir naam ) tar juto pora dan paa ta ball er opor rekhe darie achen ar ball er opor nijer jutor tolata ghoschen. amra onuvob korte pari ball ta nijeke koto vaggoban vabche. prithibi te bodhoy amon kono chele nei je oi ball tar jaygay thakle khusi hoto na.” mayer commentry cholte thake. didi or jutor tola amar mukher sorbotro ghoste thake. hothat didi pa tule amar mathar ekpashe lathi mare. sunte pai ma commentry korche, “dekhte dekhte khela suru, ball e lathi mere khela suru korlen prithibir sreshtho kheloar SAHELI. ball ta ek meyer pa theke arek meyer paye ghurche. onoboddo passing ar kicking amra dekhte pachchi khelar suru thekei. aj e prithibir prothom match jekhane meyera ball er bodole ekta jibonto cheleke football hisabe byabohar korche. mantei hobe ei khela onek besi akorshonio. ” mayer commentry cholte thaklo ar didir sneaker pora dui pai amar mukh ar mathar sorbotro achre porte laglo. amar nak, mukh, thot ,gaal, kopal, chokh sorbotro lathi marte laglo amar didi jore jore, or juto pora pa die, amon vabe jano sotti e o amake ball banie football khelche. byatha laga sotteo ami mohito hoye gelam ei khelay, bujhlam meyera jokhon cheleder mukhke ball banie oder pobitro pa die cheleder mukhe lathi mere khele, setai asol football khela. didir paa amar mukher sorbotro achre porte laglo ar ek govir valo laga amake achchonno kore tullo. ektu pore didi chair e bose porlo, ma bolte laglo ‘ akhon half time. sob meye kheloarer juto khelte khelte nongra hoye geche. tai ei jibinto ball akhon chete poriskar kore debe meyeder juto.” didi amar mukhe lathi mere bollo “jiv bar kor.” amar bujhte osubidha holona kano didi amake jiv bar korte bolche. ami jotota somvob bar kore dilam amar jiv. didi or dan jutor tolata namie dilo amar sompurno bar kore deoa jiver opor, jutor tolata ghoste laglo amar jiver opore. didi or dan jutor tolata ghose chollo amarjive, ekbar or heel amar jiv sporsho korchilo , poromuhurtei or toe amar jiv chuchchilo. ei juto pore didi school jay, mathe khele. jutor tolata kada, ar matite vora. mukh jure kada ar matir ossostikor swad pachchilam ami, kintu seta amar pobitro debisomo didir jutor tola theke asche ei chinta oi swad kei omrito kore tulechilo amar kache. didir jutor tola theke oi moylay amar mukh vore jete laglo, ar nijer didir jutor tolar moyla porom anonde gile khete thaklam ami. sunlam ma commentry korche, “apnara dekhte pachchen jibonto ei chorom vaggoban ball er jive nijer jutor tola muche poriskar korchen bisser sreshtho kheloar saheli. dekhun kivabe ball er jivta lal theke puro kalo hoye jachche ar sahelir jutor tola kalo theke hoye uthche chokchoke sada. amader sikar kortei hobe ei ball ti oti souvaggoban je tar oti tuchcho jive nijer jutor tola muchchen sahelir moto kheloar.” mayer commentry cholte laglo. ar dan juto poriskar hoye gele didi or ba jutor tolao amar jive ghoshe poriskar korte laglo. ami chete khete laglam didir jutor tolar moyla, pujor prosader moto vokti kore. meyeder hate apomanito hote ato moja aage bujhini kano ami ? amar jive didi or jutor tola ghoshe chollo ar tv r commentry te osposto sunte pelam khelar sesh muhurte goal korlo spain. kintu oi khelay tokhon amar ar kono agroho nei. ami jene gechi asol football khela setai jeta DIDI amake ball banie khelche.

Follow

Get every new post delivered to your Inbox.