Introduction ;

( This is a fantasy story site containing female domination stories .

THIS IS A STRICTLY ADULT BLOG ONLY FOR ADULT (18+) PEOPLE though there is no sex related subject present in this blog . Minor male nudity may be present in some stories with warning .

This blog is a femdom fantasy blog for those adult people who can differentiate between fantasy and reality . we neither encouraging nor discouraging anyone about femdom relationship between consentual adult but strongly discouraging any type of femdom / sexual relation with any minor .

Each and every stories and comment of this site/ blog is a reflection of our femdom fantasy . we are not encouraging anyone in any kind of femdom / Violent activities.

We will be not responsible for your action. )

ভূমিকা ;

( ভূমিকা না পরে কেউ ব্লগে ঢুকবেন না । সম্পুর্ন ভূমিকা পড়ে তবেই গল্প, কমেন্ট পড়বেন বা নিজে কমেন্ট করবেন । অন্যথায় , আপনার কোন ভুল ধারনার জন্য আমি/ আমরা দায়ী থাকব না । )

শুধুমাত্র প্রাপ্তবয়স্ক ( ১৮ +) ও প্রাপ্তমনস্ক ব্যক্তিদের জন্য , যদিও এই ব্লগের কোন গল্পই যৌনতামূলক নয় ।

অপ্রাপ্তবয়স্ক ( ১৮ বছরের কম বয়সী ), অপ্রাপ্তমনস্ক ( যারা প্রাপ্ত বয়স্ক হয়েও ফ্যান্টাসি আর বাস্তবের পার্থক্য বোঝেন না ) ও  যাদের শুধুমাত্র ফ্যান্টাসি হিসাবে লেখা ফেমডম গল্প নিয়েও সিরিয়াস সমস্যা আছে তাদের প্রবেশ সম্পুর্ন নিষেধ ।

এই সাইটের যেকোন গল্পের উপর বা কমেন্টে তাকে  আকর্ষনীয় করে তুলতে যতবার খুশী তাকে সত্যি বলে দাবী করা হতে পারে । সেটাকে সিরিয়াসলি নেওয়ার কিছু নেই । ভূতের গল্পের শুরুতে লেখক যেমন গল্পকে আকর্ষনীয় করে তুলতে সেটাকে সত্যি বলে দাবী করেন এখানেও ঠিক তাই করা হয়েছে । এই ব্লগের এডমিন ও অন্যান্য নিয়মিত পাঠকেরা অনেক গল্পেই গল্প ও পরবর্তী কমেন্ট এমনভাবে করেছে যাতে সেটা অনেকটা সত্যি মনে করানো যায় , যেটা ফ্যান্টাসির মাত্রা বাড়াতেই শুধু করা হয়েছে ।

আপনি যদি এই সাইটের যাবতীয় গল্প ও প্রতিটি কমেন্টকে শুধু ফ্যান্টাসি হিসাবে নিতে পারেন শুধুমাত্র তাহলেই সাইটে প্রবেশ করবেন ।

আমরা পারস্পরিক সম্মতিতে হওয়া প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে ফেমডম সম্পর্কে উতসাহিত বা নিরুতসাহিত কোনটাই করছি না । আপনি প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তি হিসাবে , আরেকজন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তির সম্মতিতে যা করবেন নিজেদের ইচ্ছায়, নিজেদের বুদ্ধিতে করবেন ।

বাস্তব জীবনে যে কোন অপ্রাপ্তবয়স্কর ( ১৮ বছরের কম বয়সী )  সাথে কোনরকম ফেমডম / যৌনতামুলক সম্পর্ককে আমরা চুড়ান্ত ঘৃনা করি । কোন সুস্থ সমাজেই তা গ্রহনযোগ্য না । আমাদের সাইটে ফ্যান্টাসি গল্প হিসাবে টিন এজ ছেলে / মেয়েদের মধ্যে ফেমডম কিছু ক্ষেত্রে রয়েছে । ফ্যান্টাসি আর বাস্তবের পার্থক্য না জানলে আপনি এই ব্লগ এখনই পরিত্যাগ করুন । আপনি কোন অপ্রাপ্তবয়স্ক /  সম্মতি না নিয়ে কোন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তির সাথে বিকৃত কোন আচরন করলে আমরা কোনভাবেই দায়ী হব না ।

১। এই ব্লগে খুব সামান্য কিছু গল্পে মেল নুডিটি / পুরুষের নগ্নতা রয়েছে ( CFNM ) , যা শুধু ছেলেদের হিউমিলিয়েশনের জন্য ব্যবহার করা হয়েছে , সরাসরি যৌনতামুলক কিছুর জন্য না । CFNM যুক্ত গল্পের শুরুতেই ওয়ার্নিং ও দেওয়া আছে । ফিমেল নুডিটি ( নারী – নগ্নতা )কোন গল্পেই নেই ।  নারীদের যৌনভাবে উপস্থাপনও কোন গল্পেই করা হয়নি ।

২। কোন গল্পেই স্টুল ফেটিশ, ইউরিন ফেটিশ ইত্যাদি এক্সট্রিম কিছু নেই ।

৩। এই ব্লগের বেশিরভাগ গল্পের মুল চরিত্ররা বন্ধু-বান্ধবী , স্কুল কলেজের সিনিয়র জুনিয়র অথবা এক পরিবারের সদস্য ( দিদি- ভাই , দাদা- বোন, বাবা – মেয়ে,  দেওর- বৌদি  ইত্যাদি ) ।

৪। বেশিরভাগ গল্পে ফিমেল ডমিনেশন হিসাবে উঠে এসেছে মেয়েটির মানসিকভাবে ছেলেটিকে সম্পুর্ন নিয়ন্ত্রন, তাকে দিয়ে নিজের যাবতীয় কাজ করানো , তার টাকায় ফুর্তি করা । ছেলেটিকে দিয়ে দেবী হিসাবে নিজের পুজো করানো , মুখে থাপ্পর মারা ,  মুখে লাথি মারা , মুখের উপর পা রেখে বসে পা টেপানো, জিভে জুতোর তলা মোছা ইত্যাদি আচরন । নায়িকার পায়ে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে জুতো বা চটি পরা আছে । মেয়েদের প্রায় সব জায়গায় সুন্দরী বলে বর্ননা করা হয়েছে । বেশিরভাগ গল্পে নায়িকা মেক আপ হীন ।  বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ছেলেরা স্বেচ্ছায় মেয়েটির কাছে নিজেকে সাবমিট করেছে ও মেয়েটিকে অনেক সুপিরিয়র ভেবে স্বেচ্ছায় তার সেবা করেছে, তার হাতে অত্যাচারিত হয়েছে ।

বাংলার সবচেয়ে বড় ফেমডম্ সাইটে আপনাকে স্বাগত । এই সাইটের গল্পগুলো সবই কাল্পনিক । পড়ুন , আর উপভোগ করুন ।
বাস্তবে কেউ এর প্রয়োগ করতে যাবেন না ।

এই সাইটে female superiority আর female domination নিয়ে অনেক গল্প পাবেন। ফ্যামিলি ফেমডম গল্প  ও পাবেন অনেক। কার কাছে ভাল কোন টপিক থাকলে জানাতে পারেন,আমি গল্প লিখে পোস্ট করব। আর কেউ নিজে গল্প লিখতে চাইলে আমাকে etaami11@gmail.com  এ গল্প পাঠিয়ে দেবেন।

এখানকার অনেক গল্প অনেকের হাস্যকর বা কুরুচিকর মনে হতে পারে। তাদের বলব, প্লিজ আ্পনার ভাল না লাগলে পড়বেন না ।গল্পগুলো ফ্যান্টাসি ছাড়া আর কিছুই না । আমরা কেউ বাস্তব জগতে এর প্রয়োগ করতে যাচ্ছি না। কোন গল্পকে আকর্ষণীয় করতে সত্যি ঘটনা বলে দাবি করা হতে পারে, তাই ভুমিকাতেই বলে রাখি এখানে পোস্ট করা সব গল্পই ফ্যান্টাসি ।

বাংলায় দুর্দান্ত ফেমডম গল্প পড়ার অভিজ্ঞতার জন্য ভিজিট করতে থাকুন,

http://www.banglafemdom.wordpress.com ( হিন্দি, ইংরেজি গল্প সহ বাংলা ও ইংরেজি হরফে বাংলা গল্পের জন্য)
and
http://www.banglafemdoms.blogspot.com ( শুধু বাংলা হরফে বাংলা গল্পের জন্য । )
http://www.facebook.com/familyfemdom ( for family femdom stories in english )

 

Thank you .

( ডিটেইলসে কিছু কথা বলছি শেষে । এটা আপনি নাও পড়তে পারেন ।  ধরুন আমি , এই ব্লগের এডমিন, নিজের জীবনে খুব বেশি চাপ না থাকলে গড়ে সপ্তাহে ৩ থেকে ৪ ঘন্টা সময় আমার একমাত্র ফ্যান্টাসি ফেমডমের কাল্পনিক দুনিয়ায় কাটাই । ধরুন , প্রতি সপ্তাহে শনিবার রাত ৯ টা থেকে ১ টা আমি ফেমডম ফ্যান্টাসি জগতে কাটাই । আমার ফেমডম গল্প পড়া , লেখা, কমেন্ট করা , ফেমডম ছবি ও ভিডিও দেখা সবই এই সময়ে । এই সময় টুকু নিজের ফ্যান্টাসি, ও কিছুটা ইরোটিক ফিলিং বাড়াতে বেশ কিছু গল্পকে আমি (ও আমরা, এই ব্লগের অন্যান্য নিয়মিত পাঠকেরা ) সত্যি হিসাবে ভাবার চেষ্টা করি। যদিও এই ফ্যান্টাসির জগতে ঢুকি এটাকে মাত্র কয়েক ঘন্টা স্থায়ী করার উদ্দেশ্যেই ।  কয়েক ঘন্টার ইরোটিক ফ্যান্টাসির জগতে কাটিয়ে আমি পরদিন সকালে দেহ – মনে সম্পুর্ন সুস্থতা নিয়ে বাস্তব জগতে ফিরে আসি , যেখানে এই হাস্যকর ফ্যান্টাসি কে কখনই বাস্তবের সাথে গুলিয়ে ফেলি না । এই পার্থক্যটা বুঝে নেওয়া খুব জরুরি । ফেমডম ফ্যান্টাসি আমাদের সপ্তাহের শেষে কয়েক ঘন্টা ইরোটিক দুনিয়ায় কাটাতে সাহায্য করে , টেস্টোস্টেরন লেভেল বাড়িয়ে দেহে এক অসাধারন অনুভুতি এনে দেয় । সঠিক মাত্রায় খাদ্য গ্রহন , শরীরচর্চা, ঘুম  ইত্যাদির সাথে পরিমিত মাত্রায়  ফেমডম ফ্যান্টাসি কখনই ক্ষতিকর নয়, বরং সুস্থ্য দেহ ও মনে বেঁচে থাকার পক্ষে খুবই জরুরি । আর আমার মতো যাদের ছোটবেলা থেকেই জীবনের চাপ কমাতে ডিফেন্স মেকানিসম ফেমডম ফ্যান্টাসির সাহায্য নিয়ে আসছে, তাদের জন্য সপ্তাহ শেষে মানসিক চাপ কাটিয়ে স্বাভাবিক হয়ে ওঠার জন্যও খুবই প্রয়োজনীয় এই ফেমডম ফ্যান্টাসি ।

শুধু একটা কথাই বলছি ফেমডম ফ্যান্টাসির জন্য মনে অকারনে কোন পাপ বোধ নেবেন না । আপনার যদি এই ফ্যান্টাসি থেকে বেড়িয়ে আসার ক্ষমতা থাকে তাহলে খুবই ভাল । নাহলেও অকারনে মনে চাপ নেবেন না । পরিমিত মাত্রায় বিজ্ঞানসম্মত উপায়ে নিজের মানসিকতা ও চাহিদা বুঝে, অন্যের কোন ক্ষতি না করে দিব্যি আপনি নিজের জীবনের আর পাঁচটা গুরুত্বপুর্ন বিষয়ের সঙ্গে মিশিয়ে নিরাপদেই এই ফ্যান্টাসি প্র্যাক্টিস করতে পারেন । তবে চেষ্টা করবেন সম্পুর্ন একা থাকার সময়ে  এই ফ্যান্টাসি জগতে কাটানোর জন্য । আর প্রতি সপ্তাহে সর্বোচ্চ কতটা সময় এর পিছনে দেবেন , সেটাও ঠিক করে রাখা খুব গুরুত্বপুর্ন । এটা পারলেই আপনার ফেমডম ফ্যান্টাসি কখনই নিয়ন্ত্রনহীন নেশায় পরিনত হবে না ।

কষ্ট করে ভূমিকা সম্পুর্ন পড়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ । ফেমডম ফ্যান্টাসি কোন সমস্যা না, হোক নির্মল আনন্দের উৎস ।  )